[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



হরতাল-অবরোধ নিয়ে ঢাবি শিক্ষার্থীদের ভাবনা


প্রকাশিত: February 2, 2015 , 8:06 pm | বিভাগ: ইন্টারভিউ


DU-picসারাদেশে গত ৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে বিরোধী জোটের অবরোধ। অনির্দিষ্টকালের এই অবরোধের পাশাপাশি মাঝে মধ্যেই ডাকা হচ্ছে হরতাল। এতে করে দেশের পরিবহন ব্যবস্থা থেকে শুরু করে সার্বিক অর্থনীতিতে বিরাজ করছে ভঙ্গুর অবস্থা। পেট্রোল বোমা আর ককটেল আতঙ্ক নিয়ে রাস্তায় চলাচল করতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। গাড়ি ভাংচুর আর অগ্নিসংযোগের ঘটনায় অনেকেই দগ্ধ ও আহত হয়ে হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

সহিংস এই হরতাল-অবরোধের কারণে দেশের শিক্ষাব্যবস্থায়ও নেমে এসেছে বেহাল দশা। আতঙ্ক নিয়ে বাসা থেকে বের হতে হচ্ছে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে। বন্ধ রাখা হচ্ছে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ থেকে উত্তরণের উপায় কি ? কি করলে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত হবে। বর্তমান অবস্থাকে কিভাবে অতিক্রম করা যায় এসব বিষয় নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসিতে আড্ডারত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছেন ক্যাম্পাসলাইভ প্রতিবেদক কামরুজ্জামান রেজা। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে শিক্ষার্থীদের বক্তব্যের চুম্বকাংশ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

এমবিএ ফিন্যান্স বিভাগের ছাত্র সাদ্দাদ হোসেন সুজন বলেন , ১ম সেমিস্টারের পরীক্ষা ডেট অনুযায়ী না হওয়ায় কোন কোন পরীক্ষা ডেট পরপর হওয়াতে অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছে। এ বিষয়ে দেশের রাজনৈতিক নেতাদের কোন উদ্বেগ নাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্রী ফারজানা ফেরদৌসী বলেন,  দেশের বর্তমান পরিস্তিতির কারণে আমরা আমাদের ভাগ্য নিয়েও শঙ্কীত।

আমরা বাহিরে পড়তে এসেছি বলে  বাবা-মা  আমাদেরকে নিয়ে চিন্তায় থাকেন। বর্তমান পরিস্তিতি নিয়ে তারা আরও বেশি চিন্তায় রয়েছেন বলে জানান ঢাবির দর্শন বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্রী কানিজ ফাতেমা মিম্মা

চলমান পরিস্তিতিতে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা ভঙ্গুর হয়ে পড়েছে । এ থেকে আমরা উত্তরণ চাই এমনটি বলেন ঢাবির এ্যাকাউন্টটিং বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র ফজলে রাব্বী

ঢাবির এমবিএ ফিন্যান্স বিভাগের ছাত্র নাছিব ইমরোজ বলেন , বর্তমান দেশের পরিস্তিতিতে নিরপেক্ষ রাজনীতি দরকার, যেটা এখন নাই ।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সুস্থভাবে শান্তিতে উত্তরণের পথ- একমাত্র  সরকারই পারবে দেখাতে, অন্যথায় জাতি পথ হারাবে বলে মনে করছেন ঢাবির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র আসিফ আকরাম

ঢাবি নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র জাহিদ হাসান কাকন বলেন , ক্ষমতার লোভে দেশের এই অবস্থা। কেউই সাধারণ জনগণের কথা চিন্তা করে না।

স্বাভাবিকভাবে বাঁচার জন্য যা দরকার রাজনৈতিক দলগুলো (আওয়ামী লীগ ও বিএনপি) বৈঠকে বসে তাই করুক। হরতাল-অবরোধ বন্ধ করুক এমনটি জানিয়েছেন ঢাবির মৎসবিজ্ঞান বিভাগের ৩য় বর্ষের ছাত্র মেহেদী হাসান

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ৪র্থ বর্ষের ছাত্র সাখাওয়াত আল-আমিন বলেন, দলমত নির্বিশেষে সবাই আতঙ্কে আছে। এ অবস্থা কোন স্বাধীন সার্বভৌম ও গণতান্ত্রিক দেশের কাম্য নয়।

দুইটা দলই ভাল না । এর ফলে শিক্ষাব্যবস্থার ক্ষতি হচ্ছে। এসব বন্ধ হোক এমনটি দাবি করেন শিক্ষার্থী সানজিদা আক্তার টুম্পা

ঢাবির মাস্টাটার্স ইতিহাস বিভাগের ছাত্র মিজানুর রহমান মিজান বলেন , শেষ সেমিস্টারের পরীক্ষা নির্দিষ্ট সময় থেকে  ২ মাস পিছিয়ে গেছে । এর ফলে আমাদের সেশনটের আশঙ্কা দেখা দিচ্ছে।

ঢাবি// এসআর, ২ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//আরজে