[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



স্বপ্নের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সাহস রাখো বুকে…


প্রকাশিত: February 17, 2015 , 6:29 pm | বিভাগ: আপডেট,ইন্টারভিউ


543781_10200924836307762_32823959_nচমক হাসান। দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে প্রিয় একটি নাম। বুয়েট থেকে গ্রাজুয়েশন শেষ করেছেন তিনি। পড়েছেন তড়িৎকৌশল নিয়ে। বেড়ে উঠেছেন কুষ্টিয়ার মাটিতে। বুয়েটের সাবেক এই শিক্ষার্থী কাজ করেন গণিত নিয়ে। ছাত্র-ছাত্রীদের গণিত ভীতি দূর করা ও গণিতকে সহজ থেকে সহজতর করাই যেন তার খেলা। দেশের বাইরে গিয়েও যেন তার নিস্তার নেই। ইউটিউবে অসংখ্য ভিডিও প্রকাশ করে শিক্ষার্থীদের গণিত শিখিয়ে যাচ্ছেন তিনি। দেখিয়ে যাচ্ছেন চমক। যেন নিজের নামের স্বার্থকতা খুঁজে ফেরাই তার কাজ। সম্প্রতি বইও লিখেছেন তিনি। গনিতের এই মানুষটি আবার চমৎকার সুরে গানও গাইতে জানেন। অনেকগুলো গান আছে তার নিজের লেখা ও সুর করা। প্রিয় এই মানুষটি কথা বলেছেন ক্যাম্পাসলাইভ’র সঙ্গে। জানিয়েছেন তার জীবনের বাঁকে বাঁকে লুকিয়ে থাকা সফলতার রহস্যকথা। সাক্ষাতকার নিয়েছেন ক্যাম্পাসলাইভ প্রতিবেদক হৃদয় কবির

ক্যাম্পাসলাইভ: আপনি আগে শিক্ষকতা করতেন? কোথা থেকে এই শুরুটা আমাদের একটু বলবেন?

চমক হাসান: গণিত পড়ানো আমার জীবনের সবচেয়ে আনন্দময় কাজ। কোন স্কুল কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে আমি শিক্ষকতা করিনি। গণিত অলিম্পিয়াডের সাথে যুক্ত ছিলাম। অলিম্পিয়াডের জাতীয় গণিত ক্যাম্পে প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলাম। ওখানে পড়িয়েছি নাম্বার থিওরি। অলিম্পিয়াড কমিটির উদ্যোগে সারাদেশে ‘সংখ্যা ভ্রমণ’ নামে একটা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। সেখানে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্কুলে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে গণিতের নানা মজার বিষয় নিয়ে পড়ানো হয়। আমি এই কর্মসূচির একেবারে শুরু থেকেই ছিলাম। আর পড়ানোর সবচেয়ে বড় সুযোগ হয়েছে ‘উদ্ভাস’ একাডেমিক কেয়ারে। আমি মূলত উচ্চ মাধ্যমিক জ্যামিতি আর ক্যালকুলাস পড়াতাম।

539113_10152711308705612_1078013563_nক্যাম্পাসলাইভ: প্রথম দিন পড়ানোর অনুভূতি কেমন ছিল?

চমক হাসান: পড়াতে গিয়ে আমি টের পেলাম, গণিত ব্যাপারটা মানুষের কাছে কিছু নিয়মের মতো। কয়েকটা নিয়ম মেনে অঙ্ক করলেই নম্বর পাওয়া যাবে। যারা নিয়মগুলো মুখস্থ করতে পারে, তারা ভালো করে, যেই সৃষ্টিশীল মানুষগুলো মুখস্থ করতে চায় না, তারা খারাপ করে। আমি তখন চেষ্টা করেছি আনন্দের অংশটুকু মানুষকে ছড়িয়ে দিতে। কিছু একটা পড়ানোর আমি যখন বুঝতে পারতাম যে আমি যা বোঝাতে চেয়েছি, সেটা সবাই বুঝেছে, সেই সময়ের আনন্দটা স্বর্গীয়। একটু করে যখন দেখতাম আমার সামনে মানুষগুলোর চোখ উজ্জ্বল হয়ে উঠছে, ওই অনুভূতিটার সাথে কিছুর তুলনা হয় না।

ক্যাম্পাসলাইভ: আপনার ইউটিউব এ গণিত শেখানোর যে আইডিয়াটা, সেটা কোথায় পেলেন এবং এটি তৈরির জন্যে আপনাকে কী কী করতে হয়?

চমক হাসান: ২০১১ সালে দেশের বাইরে চলে আসি। তখন খুব মিস করতাম গণিত অলিম্পিয়াড এবং গণিত পড়ানোর ব্যাপারগুলো। কিভাবে পড়ানো ব্যাপারটার সাথে থাকা যায় সেটা ভাবছিলাম। ইউটিউব খুবই চমৎকার মাধ্যম হবে, এটা বুঝতে পেরেছিলাম। খান একাডেমির ভিডিওগুলো ভালো লাগত কিন্তু সেখানে টাচপেন ট্যাবলেট ব্যবহার করা হয়, সেটা আমার কাছে ছিল না। এরপর এখানে ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে একটা মজার ভিডিও বানাই আমরা কয়েকজন মিলে ‘বিটিভির একদিন’। ওটা এডিট করেছিলাম আমি। ওটা এডিট করতে গিয়ে মনে হলো, টাচপেন তো দরকার নেই। কোন মতে একটা ক্যামেরা হলেই হবে। ইকুয়েশনগুলো এডিট করে ভিডিওতে বসিয়ে দেব। সেভাবেই ‘গণিতের রঙ্গে’ ভিডিও সিরিজের শুরু। এরপর টাচপেন কিনেছিলাম, সেটা দিয়ে ‘শিক্ষক.কম’ এর জন্য ‘ক্যালকুলাসের অ-আ-ক-খ’ ভিডিও সিরিজ তৈরি করি। অনেকেই গণিত নিয়ে নানা প্রশ্ন করত, সেগুলোর উত্তর দিতে টাচপেন ব্যবহার করে ‘চটপট গণিত’ নামে আরও একটা সিরিজ বের করি।

10959503_766706870081603_3407181910680929855_nক্যাম্পাসলাইভ: আপনার  গণিত পড়ানোর যে কৌশল, সেগুলো কীভাবে পেলেন?

চমক হাসান: কৌশল জন্ম নেয় ‘সক্রিয়’ অভিজ্ঞতায়। ধরুন, আপনি একটা কাজ করছেন, করছেন, করেই যাচ্ছেন- কিন্তু কী করছেন ভাবছেন না- তাহলে আপনার হয়তো কাজটায় দক্ষতা সামান্য বাড়বে, তবে আপনি বেশি আগাতে পারবেন না। কোন ভালো কৌশল জন্ম নেবে না। কিন্তু আপনি যদি প্রতিবার কাজটা করার সময় একটু ভাবেন, আচ্ছা আমি কি একটু বুদ্ধি করে আরও সহজে কাজটা করতে পারি- এই ভাবনাটা আপনাকে একসময় খুব কার্যকর কিছু কৌশল শিখিয়ে দেবে। আমি পড়াতে পড়াতেই শিখেছি পড়ানোর অনেক কিছু। এখনও শিখছি, শেখার চেষ্টা করছি- কারণ এখন আরও বেশি করে বুঝি যে আমি কত কম জানি!

ক্যাম্পাসলাইভ: আপনি তো বিজ্ঞানের একজন ছাত্র, শুধু গণিতকে কেন বেছে নিলেন?

চমক হাসান: বিজ্ঞান থেকে গণিতকে আলাদা করার কিছু নেই। গণিত হলো বিজ্ঞানের ভাষা। আপনি হয়তো প্রায়োগিক বিজ্ঞানের কথা বলছেন। আসলে গণিতের একেকটা শাখা জন্ম নেয়, সেটা বিজ্ঞানকে এগিয়ে নিয়ে যায় অনেকদূর। গত শতাব্দীতে আমরা চাঁদে গিয়েছি, পারমাণবিক বোমা বানিয়েছি- এসবের কিছুই হতো না যদি ক্যালকুলাস আবিষ্কার না হতো! যারা বিজ্ঞানী হতে চায়, গণিত না জেনে সেটা হওয়া সম্ভব না। তবে বিশুদ্ধ গণিতের প্রতি ভালোলাগার ব্যাপারটা, একটা নান্দনিক শিল্পসাহিত্যকে ভালবাসার মতো। কোন কার্যকারণ দিয়ে সেটা ব্যাখ্যা করা শক্ত।

262420_145616832190613_6126087_nক্যাম্পাসলাইভ: বর্তমানে আপনি কোথায় আছেন এবং কি করছেন ?

চমক হাসান: আমি বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ক্যারোলাইনাতে পিএইচডি করছি তড়িৎকৌশলের উপর।

ক্যাম্পাসলাইভ: দেশে আসার কি কোন পরিকল্পনা আছে? থাকলে আপনার দেশ নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি ?

চমক হাসান: আমার ইচ্ছে আছে দেশে ফিরে যাওয়ার। গণিত এবং বিজ্ঞান দেশের সব শ্রেণীর মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সংগ্রাম করতে চাই। লেখালেখি, ভিডিও, প্রশিক্ষণ- যতভাবে সম্ভব মানুষকে আগ্রহী করে তুলতে চাই।
ক্যাম্পাসলাইভ: শিক্ষকতাকে কখনো কি পেশা হিসেবে নিবেন?

চমক হাসান: দেশে ফেরার পর ইচ্ছে আছে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার। তবে যারা নবীন, তাদেরকেও কিভাবে শেখানো যায় সেটা নিয়েও আমার চিন্তা আছে।

ক্যাম্পাসলাইভ: বর্তমানে বাংলাদেশে সংকটময় সময় চলছে। এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ও সকল ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে কিছু বলেন।

চমক হাসান: বাংলাদেশ অনেক সম্ভাবনার একটা দেশ। সিএনএন বলেছে, ২০১৯ এ সারা পৃথিবীর ভিতরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হারে বাংলাদেশ হবে দ্বিতীয়। আমরা খুব দুর্ভাগা যে আমাদের রাজনৈতিক নেতারা আমাদেরকে আরও সামনে এগিয়ে যাওয়ার উৎসাহ না দিয়ে আরও পিছিয়ে নিয়ে যেতে চায়। এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ও সকল ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশে আমি বলতে চাই-

তোমরা কষ্ট নিও না। এই অস্থির সময় একসময়ে কেটে যাবে। তখনকার জন্য প্রস্তুত হও। নিজেকে যোগ্য করে গড়ে তুলো। স্বপ্নের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সাহস রাখো বুকে। শুধুই অভিযোগ করে যেও না! বারবার অভিযোগ করে ওরাই যারা জিততে জানে না। কী কী কারণে তুমি পারনি, এটা যেন বলো না। বরং বলবে এত এত ঝামেলা ছিল, তারপরেও আমি পেরেছি!! ভাসা ভাসা মানুষ হয়ো না, গভীর মানুষ হয়ো। যা পড়বে অনুভব করার চেষ্টা করবে, বুঝতে চাইবে। দেখো শেষ জয়টা তোমারই হবে!

ক্যাম্পাসলাইভ: এবারের বইমেলায় আপনার প্রথম বই বের হচ্ছে। এ সম্পর্কে কিছু বলুন?

চমক হাসান: এটা আসলে আমার প্রথম বই নয়। এর আগে ‘গণিতের রাজ্যে পাই’ নামে একটা সংকলন গ্রন্থে লিখেছিলাম। ২০১২ এর বইমেলায় প্রকাশিত হয় আমার অনুবাদ গ্রন্থ- ‘গল্পে জল্পে জেনেটিক্স’। বই প্রকাশের অনুভূতি সবসময়ই খুব সুন্দর। মানুষ ভালবেসে বইটি কিনছে, এটাও খুব সুন্দর অনুভূতি। বইটির প্রকাশক ‘আদর্শ’ প্রকাশনী থেকে আমাকে জানিয়েছে প্রথম মুদ্রণ শেষের পথে।

বইটি যারা কিনতে চায় তারা আদর্শ’র ৪১১-৪১২ নং স্টল থেকে কিনতে পারবেন। অনলাইনে রকমারিতে অর্ডার করতে পারবেন এখানে- http://rokomari.com/book/93989 ।

ক্যাম্পাসলাইভ: দেশের বাইরে অবস্থান করেও ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম এর সঙ্গে কথা বলায় আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

চমক হাসান: আপনাকেও ধন্যবাদ।

ঢাকা// এইচকে, ১৭ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এআর