[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



যেভাবে খালেদার গাড়ি বহরে হামলা (ভিডিও)


প্রকাশিত: April 20, 2015 , 8:11 pm | বিভাগ: আপডেট,ইলেকশন


Khaleda's carলাইভ প্রতিবেদক:  খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরে ফের ভাঙচুর ও হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। রাজধানীর কাওরান বাজার এলাকায় বিকাল ৫টা ৫০ মিনিটে এই ঘটনা ঘটে।

সংশ্লিস্টরা জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরে হামলা করেছে সরকার সমর্থকরা। এসময় দুর্বৃত্তরা বেগম জিয়ার গাড়িকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ও কাঠের টুকরো ছুড়ে মারে।

ভাঙচুর ও হামলার  বিষয়ে জানতে চাইলে সন্ধ্যায় পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার  বলেন, ‘ঘটনার সময় আমি মিটিংয়ে ছিলাম। আমি এলাকা পরিদর্শনে যাচ্ছি। পরিদর্শন শেষে বলতে পারব।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি-সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে নেমে হামলার মুখে পড়েন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার বহর।

এসময় হামলাকারীরা খালেদা জিয়ার গাড়িতে ঢিল ছোড়ে। এতে তাঁর গাড়ির ডান পাশের কাচ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এলোপাতাড়ি ভাঙচুর করা হয় তাঁর নিরাপত্তাকর্মীদের (সিএসএফ) ৪/৫টি গাড়িসহ বেশ কয়েকটি গাড়ি। এতে  একজন নিরাপত্তাকর্মীসহ কয়েকজন আহত হন। বেগম জিয়ার গাড়ির সামনের অংশে রক্তের দাগও দেখা গেছে। তবে তিনি অক্ষত আছেন।

তাবিথের পক্ষে প্রচার চালাতে সোবার বিকেলে কারওয়ান বাজারে যান খালেদা জিয়া। ওই এলাকায় যানজটের কারণে বেশ কিছুক্ষণ আটকে থাকে তাঁর গাড়িবহর। ৫টা ৫০মিনিটে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উল্টো দিকে গাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে পূর্বমুখী হয়ে বক্তব্য রাখছিলেন খালেদা জিয়া।

এ সময় উল্টো দিকে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে বেশ কয়েকজন যুবক তাঁকে জুতা ও কালো পতাকা দেখান। তাঁর বক্তব্যের শেষের দিকে গাড়ি লক্ষ্য করে ঢিল ছোড়া হলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। বিএনপির নেতা-কর্মীরা ‘ধর ধর’ বলে ঢিল নিক্ষেপকারীদের ধাওয়া করেন।

khaleএক পর্যায়ে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের সামনে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। খালেদা জিয়া আবার গাড়িতে ঢুকে যান।

তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারে নেমে হামলার মুখে পড়ে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহর। একই সময়ে উত্তর পাশ থেকে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে অর্ধ শতাধিক লোক মিছিল নিয়ে আসে। তাঁদের অনেকের হাতে ছিল লাঠি।

বেগম জিয়ার গাড়িবহরের কাছাকাছি গিয়েই তাঁরা হামলা শুরু করেন। এলোপাতাড়িভাবে ইট ও ডাবের খোল ছুড়তে থাকেন। জটের কারণে খালেদার গাড়ি সামনের দিকে এগোতে পারছিল না।

হামলাকারীদের অনেকে তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছুড়তে থাকেন। তাঁর গাড়ির ছাদ ও কাচে বেশ কয়েকটি ইটের টুকরা পড়তে দেখা গেছে। এ সময় বিএনপির কয়েকজন নেতা-কর্মী ও খালেদা জিয়ার নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁর গাড়ি ঘিরে নিরাপত্তাবলয় তৈরি করার চেষ্টা করেন।

তার নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মীদের মধ্যে একজনের মাথা ফেটে যায়। গাড়িতে খালেদা জিয়া সাধারণত বসেন দ্বিতীয় সারিতে। ওই বরাবর তাঁর গাড়ির ডান পাশের কাচ ফেটে যায়।

একই সময়ে বেগম জিয়ার গাড়ির ঠিক পেছনে তাঁর নিরাপত্তায় নিয়োজিত একাধিক মাইক্রোবাসে হামলাকারীরা লাঠি, লোহার পাইপ দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাঙচুর চালাতে থাকে।

গাড়ি সামনের দিকে এগোতে থাকলে হামলাকারীরাও ধাওয়া দিয়ে ভাঙচুর চালাতে থাকে। একপর্যায়ে বাম পাশ দিয়ে এফডিসি হয়ে মগবাজারের দিকে চলে যান খালেদা জিয়া। সেখান থেকে তিনি বেইলি রোড এলাকায় প্রচারে যান।

কারওয়ান বাজারের পাইকারি মাছের আড়তের কাছাকাছি পর্যন্ত হামলাকারীরা তাঁর গাড়িবহরকে ধাওয়া করে। পরে হামলাকারীরা কারওয়ান বাজারে মিছিল করে। এ সময় ‘কারওয়ান বাজারের মাটি, ছাত্রলীগের ঘাঁটি’ এমন স্লোগানও দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত  রোববারও খালেদা জিয়া প্রচার চালাতে উত্তরায় গেলে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা কয়েক দফায় কালো পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ দেখায়। হামলা করার চেষ্টা করে।

কিন্তু পুলিশ ও এলাকাবাসীর কারণে তারা পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে কোন মামলা হয়নি। পুলিশ কা্উকে গ্রেফতারও করতে পারেনি। সূত্র: p alo

হামলার ভিডিও দেখতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।

http://content.jwplatform.com/previews/IsLX3sev-nomIysVA

ঢাকা, ২০ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এআর