[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



ঢাবিতে অন্য সম্প্রদায়ের ঈদ ভাগাভাগি


প্রকাশিত: July 25, 2015 , 8:22 pm | বিভাগ: আপডেট,ঢাকার ক্যাম্পাস,পাবলিক ইউনিভার্সিটি,ফিচার


মোহাম্মদ হাসান, ঢাবি: জাতি হিসেবে বাঙালী বা বাংলাদেশীরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতির এক উৎকৃষ্ট উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।এখানে ধর্ম বা সম্প্রদায় নয়, মানুষকে দেখা হয় মানুষত্ব দৃষ্টিতেই।তাইতো সব ধর্মের উৎসবগুলো ভাগাভাগি হয় সবার মাঝে। বিশেষ করে দেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এর উজ্জল দৃষ্টান্ত। এখানে সবার মধ্যে একটি স্লোগানই প্রধান্য পায়। তাহলো- ধর্ম যার যার উৎসব সবার।

মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদ। এই উৎসবে ধনী- গরীব, রাজা-প্রজা সকলেই সমান আনন্দ উপভোগ করেন। সকল সংঘাত ভুলে একই ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হন সবাই। মুসলমানদের এই বন্ধন দেখে অন্য ধর্মালম্বীরাও আনন্দ উপভোগ করেন। ঢাবি ক্যাম্পাসে এমন আনন্দঘন চিত্র চোখে পড়ে যে কারো।
ঈদের দিন মুসলমানদের মতো হিন্দু ও খ্রিস্টানসহ অন্য ধর্মেও বন্ধুরাও নতুন জামা পরিধান করেন। ধর্মীয় ভেদাভেদ উপেক্ষা করে একে অপরের বাড়িতে যান। ভালোবাসার বন্ধন আরো দৃঢ় করেন। বন্ধুদের সাথে একত্রিত আড্ডায় মেতে উঠেন সব ধর্মের মানুষ।

আবার মুসলিম শিক্ষার্থীরাও হিন্দুদের পূজা পার্বনগুলো যান। তাদের উৎসবে সহযোগিতা করেন, নিজেরাও আনন্দ উপভোগ করেন। যা পরস্পরের মধ্যে বন্ধন ও ভালোবাসা আরো সুদৃঢ় করে। পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ ও সহনশীলতা বাড়িয়ে দেয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অন্য ধর্মের শিক্ষার্থীদের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জগন্নাত হল নামে একটি হল রয়েছে। ঈদের ছুটিতে প্রায় ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী বন্ধু-বান্ধবদের সাথে বাড়িতে গেছেন। যারা হলে ছিলেন- ঈদের দিন তারা যে যার বন্ধুদের বাসায় যান। পরে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে মুসলিম বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়ান।

কথা হয় জগন্নাত হলের শিক্ষার্থী তপনের সঙ্গে। তিনি ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসবে আমরাও তাদের মতো আনন্দ করি। ঈদের দিন মুসলিম বন্ধুরা আমদেরকে তাদের বাড়িতে যেতে বলেন। তাদেও বাসায় যাই এবং খাই। আবার আমাদের উৎসবেও তাদেরকে আহবান করি, তারাও আসে।
ঢাবি শিক্ষার্থী প্রতীক চক্রবর্তী ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, আমাদের হলের অনেকেই ঈদের আগেই বাড়িতে চলে গেছে। অল্প কিছু শিক্ষার্থী হলে ছিল। ঈদের দিন তারা বন্ধুদের নিয়ে ঢাকা শহরে ঘুরে কাটিয়েছে।

রোকেয়া হলের আবাসিক ছাত্রী অর্পিতা ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, মুসলমানদের এই উৎসবগুলোতে আমরাও নতুন পোশাক পরিধান করি। তাদের সাথে বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়াই। সত্যিই এটা অনেক আনন্দের। এখানে ধর্মের ভিন্নতা আমাদেরকে আলাদা করে না।

শামছুন্নাহার হলের ছাত্রী পপি পাল ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, মুসলমান শিক্ষার্থীদের সাথে ঈদের ছুটিতে আমরাও বাড়িতে যাই। ঈদের দিন সকালে আমাদের বাড়িতেও সেমাই রান্না করি। দারুণ উপভোগ করি এই ঈদ।

ধর্মীয় ভেদাভেদ উপেক্ষা করে সব সম্প্রদায়ের মধ্যে বন্ধুত্ব ও মানুষত্বের এ বন্ধন অটুট থাকবে চিরকাল ঢাবি শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশা এমনই।

ঢাবি// এইচএন, ২৫ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এইচএস