[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার মন্ত্র


প্রকাশিত: October 25, 2015 , 7:37 pm | বিভাগ: ইয়াং স্টাইল


লাইভ প্রতিবেদক: সম্পর্ক। শব্দটি শুনলেই এক ধরনের প্রশান্তি আর নির্ভরতা এসে ভর করে। কারণ বহু রকম সম্পর্কের নিগঢ়েই বাঁধা আমাদের এ জীবন।

তাই তো সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার বিষয়টি অত্যন্ত জরুরি। শুধু সমাজ-সংসার নয়, আপনার ব্যক্তিজীবনেও রয়েছে সম্পর্কের গভীর প্রভাব।

বিশেষ করে যার সঙ্গে জীবনের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে চলছেন তার সঙ্গে সম্পর্কটা থাকতে হবে সবচেয়ে গভীর। কিন্তু কীভাবে? কিছু বিষয় মাথায় রাখলে বিষয়টি খুবই সোজা।

ক্ষমা করতে শিখুন

কেউ আপাদমস্তক নির্ভুল নয়। ভুলত্রুটি নিয়েই জীবন। তাই আপনি যখন কারও প্রতি আকর্ষণ অনুভব করবেন, তখন তার ভুলত্রুটি গুলি চিহ্নিত না করে তা অগাহ্য করুন। সম্পর্ক এগোলে আপনারা নিজেই একে অপরের ভালো-মন্দ দিক খুঁজে পাবেন।

এই সময় আপনাদের একে অপরকে বোঝা ও সহানুভূতিশীল হওয়া প্রয়োজন। যদি আপনি সম্পর্কের ক্ষেত্রে খোলা মনের হন তাহলে সঙ্গী সহজেই আপনাকে বিশ্বাস করবে।

তাই সহানুভূতিশীল ও খোলা মনের হয়ে সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যান। গড়ে তুলুন ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিভঙ্গি।

দুজনকে নিয়ে ভাবুন

অনেক লোককথা নিয়ে ভাবেন। কী হবে, কী হবে না.. এমন সব নানা অলীক কল্পনা ভর করে। আসলে বর্তমানটাকে উপভোগ করতে হবে।

কে কী ভাবছে তা ভেবে আপনার কাজ কী। সম্পর্কের বিভিন্ন রকম স্তর হয়। আপনার সম্পর্কে তৃতীয় কারও হস্তক্ষেপ সম্পর্ককে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করায়। যখন আপনি কাউকে আপনার জীবন সঙ্গী হিসেবে বাছবেন তখন আপনি নিজে ভাবুন এই সম্পর্ক আপনার জন্য সঠিক কিনা? অন্য কারও মতামতকে প্রাধান্য দেবেন না।

নিজের কাছে স্বচ্ছ থাকুন

নিজের কাছে স্বচ্ছ থাকা একটি সম্পর্ক ধরে রাখার ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সম্পর্কে থাকুন আর না থাকুন নিজের কাছে স্বচ্ছ থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এমন নয় আপনাকে সত্য কথায় ধর্মপুত্র যুধিষ্ঠিরকেও হার মানাতে হবে। তবে, এমন কিছু বলবেন না যাতে নিজেই নিজের মুখোমুখি হতে না পারেন।

সমতা বজায় রাখুন

আমরা বলছি না আপনি নিজের স্বাধীনতা ভুলে যান। কিন্তু আপনি যদি সপ্তাহান্তে একদিন দু’ঘন্টার জন্য আপনার সঙ্গীকে সময় দেন, তাহলে আপনি অন্যায় করছেন।

download

অন্তত রোজ রাতে একসঙ্গে সময় কাটালে সম্পর্কের ভালো দিক প্রকাশ পায়। এতে আপনি কখনও সঙ্গীর থেকে দূরে যাবেন না। আপনার সঙ্গীর মধ্যেই আপনার দুনিয়া বানিয়ে নিন।

যোগাযোগই সম্পর্কের চাবিকাঠি

মনের কথা প্রকাশ করতে কখনও ভয় পাবেন না। যদি আপনি আপনার অনুভূতিগুলি প্রকাশ না করেন, তবে আপনার সঙ্গী আপনার মনের কথা জানবে কী করে?

আসলে সম্পর্ক একটি টু ওয়ে রাস্তার মতো। তাতে একে অপরের সুবিধা অসুবিধাগুলি বোঝা খুব জরুরি।

কাজেই দীর্ঘদিনের সম্পর্ক যেন সহসাই ভেঙে না যায় সে ব্যাপারে সচেতন থাকুন। জীবন হয়ে উঠবে মধুময়।

ঢাকা, ২৫ অক্টোবর//(ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম)//আরকে