[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



টেন্ডুলকার-লারাদের মতো মাশরাফিও!


প্রকাশিত: January 18, 2016 , 6:16 pm | বিভাগ: আন্তর্জাতিক খেলা,আপডেট,স্পোর্টস


স্পোর্টস লাইভ: ১৯৯৭ সালে ওয়ানডে স্ট্যাটাস পায় বাংলাদেশ। আর তার পর থেকেই বাংলাদেশ ক্রিকেটের দায়িত্বভার নিয়েছেন অনেকেই। দলকে সাফল্যও এনে দিয়েছেন অধিনায়করা। আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের সেরা অধিনায়ক কে? এমন প্রশ্ন ছুঁড়ে দেয়া হলে নিঃসন্দেহে সবার আগে উঠে আসবে মাশরাফি বিন মুর্তজার নাম।

দলের একের পর এক সাফল্যে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য এক চূড়ায়। বাংলাদেশের জীবন্ত কিংবদন্তী বললেও ভুল হওয়ার কথা নয়। ভারতের ইতিহাসে কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের মতো আর কোন ক্রিকেটার আসবেন কি না এই নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। আর বাংলাদেশের এই নড়াইল এক্সপ্রেস।

টেন্ডুলকার ক্যারিয়ার শেষে জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত আত্মজীবনীতে ফুটিয়ে তুলেছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বরপুত্র ব্রায়ান লারা, অস্ট্রেলিয়ার দুবারের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহও আত্মজীবনী লিখেছেন। ভারতের আরেক কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কারও এ তালিকায় আছেন।

টেন্ডুলকার, লারা, ওয়াহ, গাভাস্কার ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় তারকা, বড় আদর্শ। তাদের চেয়ে বাংলাদেশের মাশরাফি বিন মুর্তজা কম কিসের! বাংলাদেশের উজ্জ্বল এ নক্ষত্র বহু মানুষের আদর্শ। তার আত্মবিশ্বাস, অনুপ্রেরণায় এখনো বহু ক্রিকেটার জাতীয় দলকে ‘সেবা’ দিয়ে যাচ্ছেন।

দুই পায়ে সাতটি অস্ত্রোপচারের পরও মাশরাফি দাপটের সঙ্গে খেলে যাচ্ছেন। নি:সন্দেহে ক্রিকেট বিশ্বের প্রথম বোলার মাশরাফি, যিনি তার ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই হাজারো বাধার সম্মুখীন হয়েছেন। তবুও বল হাতে এখনো ২২ গজ মাতাচ্ছেন।

সেই মাশরাফি নিজের ক্যারিয়ার শেষে আত্মজীবনী লিখবেন বলে জানিয়েছেন। মাশরাফি-ভক্ত ও ক্রিকেটপ্রেমিদের জন্য এ এক বিশাল খবর। সোমবার মাশরাফিকে নিয়ে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। ক্রীড়া সাংবাদিক দেবব্রত মুখোপাধ্যায়ের লেখা বইটির নাম ‘মাশরাফি’।

বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে মাশরাফি বলেন, ‘আমারও ইচ্ছে ও পরিকল্পনা আছে আত্মজীবনী লেখার। এখনো প্রক্রিয়া শুরু করিনি। তবে তা বিক্রির উদ্দেশ্য থাকবে না।’

আত্মজীবনী লেখার কারণ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘আমি এমন কোনো সুপারস্টার হয়ে যাইনি যে আমার আত্মজীবনী লিখতে হবে। তবে আমি জীবনে যে কঠিন মুহূর্ত দেখেছি, তা পৃথিবীর অনেক বড় সুপারস্টারও দেখেনি। আমি চাই বাংলাদেশের উঠতি ক্রিকেটাররা ওই মুহূর্তগুলো জানুক। তাহলে অনেক কিছু শিখতে পারবে, অনেক কিছু জানতে পারবে।’

মাশরাফির জন্ম ১৯৮৩ সালের ৫ অক্টোবর। নড়াইল জেলায়। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম বোলিং স্তম্ভ ও একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন। তার ডাক নাম কৌশিক। বাংলাদেশ জাতীয় দল ছাড়াও তিনি এশিয়ান একাদশের একদিনের আন্তর্জাতিক দলে খেলেছেন।

ঢাকা// ১৮ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// জেআর