[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



‘রয়্যাল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রি’র ফেলো হলেন মানারাতের ভিসি


প্রকাশিত: April 24, 2016 , 3:10 pm | বিভাগ: আপডেট,এচিভমেন্ট


মানারাত লাইভ: মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর ড. চৌধুরী মাহমুদ হাসান যুক্তরাজ্যের রয়্যাল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রি-র ফেলো হিসেবে অর্ন্তভূক্ত হয়েছেন।

রসায়ন বিজ্ঞানে অসামান্য অবদান এবং গবেষণার জন্য তাকে যুক্তরাজ্যের রয়্যাল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রি ১১ ই মার্চ, ২০১৬  ফেলো হিসাবে অর্ন্তভূক্ত করেন। তিনি আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান একজন গবেষক হিসেবে সুপরিচিত।

তিনি বিশ্বের প্রায় ২৩টি দেশে ৫৭টি আন্তর্জাতিক সেমিনারে গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তার ২৩৩ টি গবেষণা প্রবন্ধ বিভিন্ন দেশি এবং বিদেশী প্রসিদ্ধ বিজ্ঞান সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়।

ড. হাসান এর আগে ১৯৯০-১৯৯১ সালে “কমনওয়েলথ একাডেমিক স্টাফ ফেলোশিপ” এবং ২০০৪ সালে “জাপান সোসাইটি ফর দ্যা প্রমোশন অব সায়েন্স” এর সিনিয়র ফেলোশিপ অর্জন করেন।

মেডিসিনাল প্লান্ট এবং বায়োলজিক্যাল সায়েন্স গবেষণায় অনবদ্য দক্ষতার স্বীকৃতি স্বরুপ ২০০৩ সালে হাবিবুর রহমান স্বর্ণপদক, ২০০৬ সালে বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স স্বর্ণপদক (সিনিয়র গ্রুপ), ২০০৭ সালে চন্দ্রাবতী স্বর্ণপদক এবং ২০০৮ সালে অতীশ দীপঙ্কর স্বর্ণপদক লাভ করেন।

ড. হাসান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফামার্সি অনুষদের দুইবার নির্বাচিত ডিন ছিলেন। অধ্যাপনার পাশাপাশি প্রেষণে বাংলাদেশ সরকারের ড্রাগ এ্যাডমিনিস্ট্রেশনের পরিচালক এবং বিসিএসআইআর এর চেয়ারম্যান হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটি এবং আমেরিকান সোসাইটি অব ফার্মাকগনছি এর একজন সদস্য, রয়্যাল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রি এবং বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এর ফেলো।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.ফার্ম এবং এম.ফার্ম উভয় পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অর্জন করে ১৯৭৮ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসি বিভাগে শিক্ষকতা পেশায় যোগদান করেন। তিনি ১৯৮২ সালে যুক্তরাজ্যের স্ট্যাথক্লাইড বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসিটিক্যাল বিভাগ থেকে ফিথোকেমিস্ট্রি বিষয়ে পিএইচডি অর্জন করেন। তিনি সাবেক বিচারপতি মরহুম আব্দুল কুদ্দুস চৌধুরীর জ্যেষ্ঠ পুত্র এবং সাবেক ডিপিআই মরহুম ফেরদৌস খানের জামাতা।

 

ঢাকা, ২৪ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম) //এএইচবি