[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



যে মধু মদের স্বাদকেও হার মানায়!


প্রকাশিত: May 8, 2016 , 9:30 pm | বিভাগ: আপডেট,ইয়াং স্টাইল


bee

ইন্টারন্যাশনাল লাইভ: মধুকে বলা হয়ে থাকে মৃত্যু ব্যতীত সকল রোগের ওষুধ। খাঁটি মধুর সন্ধানে কোথায় না যাচ্ছেন আপনি। সুন্দরবন, বান্দরবান এমনকি আধুনিক সব বিতানীতে গেছেন একটু ভালো মধুর খোঁজে। জীবনে তো কতো মধুই না খাওয়া হলো। কিন্তু কখনো নেপালি মধু খেয়েছেন? পৃথিবীর সবচেয়ে দুর্লভ খাদ্যবস্তু এটি। নেপালিরা বলে ‘ম্যাড হানি’। শুধুমাত্র নেপালের দুর্গম পার্বত্য এলাকায় এই মধু পাবেন আপনি। যেখানে আধিপত্য প্রাচীন গুরুং উপজাতির।

মাটি থেকে হাজার হাজার মিটার উপরে হিমালয়ের খাঁজে বাসা বাঁধে বিশেষ এক দৈত্যাকার মৌমাছি। আয়তনে প্রায় ৩ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। বছরের একটি নির্দিষ্ট মাসে হিমালয়ের এক বিষাক্ত ফুল থেকে মধু সংগ্রহ করে তারা। জমিয়ে রাখে নিজেদের বাসায়। খাড়া পাহাড়ে চড়ে বিশেষ সেই লাল মধু পেড়ে আনেন গুরুং উপজাতির বাসিন্দারা।

article

বিশেষ এই মধুই বিশ্বে ‘ম্যাড হানি’র আখ্যা পেয়েছে। এক পরীক্ষায় প্রমাণিত হয়েছে, মাদকের মতই নেশা রয়েছে এই বিশেষ মধুর মধ্যে। শুধু তাই নয় মধুমেহ, উচ্চ রক্তচাপ এবং নিয়মিত সঙ্গমেও বিশেষ উপকারী এর যত সামান্য পরিমান। তবে, বেশি খেলে তা আবার হৃৎপিন্ডের জন্য ক্ষতিকর এবং নেশার চোটে মানুষের চোখে ধাঁধা লেগে যায়।

সারা পৃথিবীতে গুটি কয়েক মানুষই এই বিশেষ মধুর স্বাদ পেয়েছেন। তবে গুরুং উপজাতির বাসিন্দারা রোজ সকালে সেবন করে থাকেন এর এক চামচ। এতেই তাঁরা আবার শক্তি পায় দুর্গম পাহাড়ের উপরে উঠে এই বিরল মধু সংগ্রহ করার।

 

ঢাকা// ৮ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এফআর