[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



বঙ্গবন্ধু লিখতে ছাত্রলীগের আপত্তি কেন?


প্রকাশিত: May 22, 2016 , 10:57 pm | বিভাগ: পলিটিক্স


bb-1

লাইভ প্রতিবেদক: একটি A4 সাইজের পেজে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল কথাগুলো লিখতে অনেক বেশি জায়গা দখল করে তাই না? তাই বলে শুধু ব ব লিখেই খালাস? সম্প্রতি ঢাবি ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্যাডে সংগঠনটির শীর্ষ নেতাদের স্বাক্ষরিত এ কমিটির তালিকায় দেখা যায়- বিভিন্ন হল কমিটিতে মনোনীত নেতাদের নামের শেষে হলের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। সেখানে দেখা যায় বঙ্গবন্ধু ছাত্রাবাসের জায়গায় শুধুমাত্র ‘ব ব’ হল লেখা রয়েছে। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের উপাধি বঙ্গবন্ধু লিখতে ‘অনীহা’ দেখিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। তবে জিয়াউর রহমানের নাম লিখতে কার্পণ্য করেনি এই সংগঠনটির নেতারা!

পুরো তালিকায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনকের নামের জায়গায় এক ডজনের বেশি নেতার নামের শেষে লেখা রয়েছে ‘ব ব হল’। অথচ জিয়া হলে অবস্থানরত কমিটির নেতাদের নামের পর ‘জিয়া হল’ লেখা রয়েছে ঠিকই!

জানা যায়, ২১ মে শনিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যবাহী মধুর ক্যান্টিনে দীর্ঘ ১১ মাস পর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।bb

ওই তারিখে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদনকৃত প্যাডে দেখা যায় সহ-সভাপতি মো. রুম্মান হোসাইনসহ আরো কয়েকজন নেতার নামের পাশে ব্র্যাকেট করা ‘ব ব হল’ এবং ফারুক হোসেন তালুকদারের পাশে ব্র্যাকেট করা ‘জিয়া হল’ উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর নামের জায়গায় ‘ব ব’ লেখায় সাবেক ও বর্তমান ছাত্রলীগের অনেকের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। অনেকে ফেসবুকে কমিটির ওই তালিকা প্রকাশ করে ক্ষোভের সঙ্গে স্ট্যাটাসও দিচ্ছেন।

সুশান্ত দাশগুপ্তা ফেসবুকে কমিটির ছবিসহ লেখেন- কমিটির নামগুলো পড়তে গিয়ে একটা ব্যাপার নজরে আসলো। কিছু কিছু নামের শেষে দেখতে পেলাম ব্রাকেটে হলের নাম লিখেছে ‘ব ব হল’ অথচ মহসিন লিখতে যে কয়টা বর্ণ লাগে বঙ্গবন্ধু লিখতেও খুব বেশি বর্ণ লাগে না। আবার জিয়া হল লিখছে ঠিকই। দুই শব্দের জসিম উদ্দিন হল পযর্ন্ত লিখেছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু হল লিখতে পারে নাই।

বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ফোরাম (বোয়াফ) সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় এ নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি লেখেন, সত্য সবসময় একটা শ্রেণিকে তিক্তস্বাদ গ্রহণে সহায়তা করে থাকে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেছে। লজ্জার বিষয়, অনুমোদিত কমিটির নেতাদের ছাত্রাবাস নির্ণয় করতে বঙ্গবন্ধুর জায়গায় ‘ব ব হল’ আর অন্যদিকে জিয়ার জায়গায় জিয়া লিখতে কারো ভুল হয়নি।

প্লিজ, বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া ঐতিহ্যবাহী ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ সংগঠনটি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে পরিচালিত করার চেষ্টা করুন। নতুন নেতাকর্মীদের মাঝে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন, রাজনৈতিক রীতিনীতি ও জাতির জনকের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব অনুসরণ করুন।

ঢাকা// ২২ মে(ক্যাম্পাসলাইভ.২৪.কম)//এফআর