[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এবার মাদ্রাসা ছাত্রসহ দুইজন নিহত


প্রকাশিত: July 1, 2016 , 11:51 am | বিভাগ: আপডেট,খুলনার ক্যাম্পাস,মাদ্রাসা


bonduk

ঝিনাইদহ লাইভ : সদর উপজেলায় আবারও কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে একজন মাদ্রাসা ছাত্রও রয়েছে। পুলিশ তাদের ‘সন্ত্রাসী’ বলে দাবি করেছে। এদের মধ্যে একজনকে বাড়ি থেকে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

জেলার পুলিশ সুপার শেখ আলতাফ হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে নলডাঙ্গা ইউনিয়নের তেঁতুলবাড়িয়া গ্রামে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। রাত সোয়া ২টার দিকে নলডাঙ্গা-তেঁতুলবাড়িয়া সড়কে টহল দেওয়ার সময় ‘ওঁত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা’ পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় পুলিশ পাল্টা গুলি করে। কিছু সময় গোলাগুলির পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে দুইজনের লাশ পাওয়া যায়। এসময় ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে একটি শাটারগান, ছয় রাউন্ড গুলি ও ছয়টি হাতবোমা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহতরা ওই এলাকায় ‘কোনো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের চেষ্টা’ করছিল বলে সন্দেহের কথা বলেছেন পুলিশ সুপার। তাদের সন্ত্রাসী বলা হলেও কোনো মামলা তাদের নামে আছে কি না সে তথ্য তিনি দিতে পারেননি।

নিহতদের মধ্যে একজন হলেন ঝিনাইদহ আলিয়া মাদ্রাসা থেকে ফাজিল পাস করা শহীদ আল মাহমুদ (২৫)। তিনি একই উপজেলার বদনপুর গ্রামের রজব আলী বিশ্বাসের ছেলে।

অপরজন আনিসুর রহমান (২৬) কুষ্টিয়া সদরের যোকিয়া ভাটপাড়া এলাকার সাত্তার হোসেনের ছেলে।

এদের মধ্যে শহীদকে ১৩ জুন পুলিশ পরিচয়ে বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হলেও পুলিশ তা স্বীকার করেনি।

নিহত শহীদ আল মাহমুদের বড় ভাই আব্দুর রহিম দাবি করেছেন, গত ১৩ জুন মধ্য্যরাতে পুলিশ পরিচয়ে একদল লোক বাড়ি থেকে তার ভাইকে তুলে নিয়ে যায়।

তবে মাহমুদকে আটক বা গ্রেপ্তারের কোনো তথ্য নেই বলে দাবি করা হয়েছে ঝিনাইদহ সদর থানার পক্ষ থেকে।

ঢাকা, ০১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন