[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



এর পরেও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে উপচেপড়া ভিড়


প্রকাশিত: July 8, 2016 , 9:36 pm | বিভাগ: আপডেট,ইভেন্ট,ন্যাশনাল


pi12

লাইভ প্রতিবেদক : হামলা ও নানা শংকার পরেও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে উপচেপড়া ভিড়। মানুষের মাঝে যেন সামান্যতমও ভয়ভীতি নেই। অবিরাম গতিতে তারা বিনোদনের জন্যে বেরিয়ে যায় সাত সকালেই। ঈদের দ্বিতীয়দিন বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোর মানুষের ভিড় ছিল লক্ষ্য করার মতো।

রাজধানীর অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র চিড়িয়াখানায় এবং শিশুপার্কে ছিল সবচেয়ে বেশি ভিড়। এসব বিনোদন কেন্দ্রে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ তাদের পরিবার, পরিজন এবং তাদের সন্তানদের নিয়ে উপস্থিত হন। সময় যত গড়াচ্ছে ভিড়ও তত বেড়ে যায়।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর থেকেই মিরপুরের বোটানিক্যাল গার্ডেনে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। দুপুরে চিড়িয়াখান গেটে গিয়ে দেখা গেছে, দীর্ঘ লাইন দিয়ে মানুষ ভেতরে প্রবেশ করছে। টিকিটও নিতে হয় লাইন দিয়ে। কিন্তু তারপরও কোনো ক্লান্তি নেই। নামাজ শেষে হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই মানুষ চিড়িয়াখানা যাওয়া শুরু করে।

বোটানিক্যাল গার্ডেনের প্রবেশ করতে লম্বা লাইনে দাড়ানো সাজ্জাদ হোসেন ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, বিকেলে ভিড় হবে মনে করে জুমার নামাজ পড়ে চলে আসি। লাভ হয়নি সেই ভিড়ের মধ্যেই পড়লাম।

এদিকে শাহাবাগ শিশুপার্কেও সকাল থেকে উপচে পড়া ভিড় ছিল। পার্কের ভেতরে প্রবেশ করতে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়াতে হয়েছে দর্শনার্থীদের। ভেতরে প্রবেশ করে রাইডে উঠতেও একইভাবে লাইনে দাঁড়াতে হয়েছে তাদের। তারপরও ক্লান্তি দেখা যায়নি কারো মাঝে।

শিশুপার্কে আগামী দুই দিনে ভিড় আরো বাড়বে বলে মনে কেরছে কর্তৃপক্ষ। সরকারি বিনোদন কেন্দ্র ছাড়াও রাজধানীর বেসরকারি কেন্দ্র গুলোতেও ভিড় ছিল উল্লেখযোগ্য।

সকাল ১০টা থেকে শ্যামলীর শিশুমেলাও ছিল শিশুদের পদচারণায় মুখরিত। শিশুমেলার কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম ক্যাম্পাসলাইভকে  বলেন, সকাল থেকেই অবিভাবকসহ শিশুরা এখানে ভিড় জমাতে শুরু করেন। সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ভিড় ছিল অত্যাধিক। জুমার নামাজের সময় কিছুটা কমলেও নামাজের পর তা আবার বেড়ে যায়।

শিশুমেলায় দুই সন্তানকে নিয়ে আসা উম্মে কুলসুম সাথি ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, আগাঁরগাও কলোনী থেকে বাচ্চাদের নিয়ে পায়ে হেটে এসেছেন তিনি। এখানে টিকিট কিনতে হয়েছে জনপ্রতি ১০০ টাকা করে। এরপর প্রতিটি ইভেন্টের জন্যে ৫০ টাকা করে টিকিট কাটতে হয়েছে। তবুও শান্তি দূরে যাওয়া লাগেনি।

তিনি আরও বলেন, আমরা ভালই মজা করছি। নানা ভয়ভীতিতো আছেই তার পরেও তো জীবন থেমে থাকবে না।
ঢাকা, ০৮ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএইচ এন