[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



‘বিদেশিরা বাংলাদেশি কর্মী নেবার জন্য পাগল হয়ে যায়’


প্রকাশিত: July 14, 2016 , 5:40 pm | বিভাগ: বিজনেস


nurulislam

লাইভ প্রতিবেদক: প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বলেছেন, ‘আমাদের দেশের কর্মীরা বিদেশে এত সুনাম অর্জন করেছে; বিদেশিরা বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগের জন্য একদম পাগল হয়ে যায়।’ এছাড়া সম্প্রতি জঙ্গি হামলায় শ্রমবাজারে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বৃহস্পতিবার বিগত এক বছরের অর্জন ও আগামী এক বছরের কর্মপরিকল্পনা বিষয়ক এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এ কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি সিঙ্গাপুর ও ওমানের ঘটনা নিয়ে কথা বলেন মন্ত্রী।

সম্প্রতি হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওমানে বাংলাদেশি নারীকর্মীরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। এ বিষয়ে নুরুল ইসলাম বলেন, ‘অনেক নারীকর্মী বলেন, আমাকে ভাত দেয় না। ওই দেশে তো রুটি খায়। বলে আমাকে ভাত দেয় না, আমি কাজ করব না। অনেকে কাজ করবে না বলে শেল্টারে চলে যায়। সুতরাং সব তথ্য যে সঠিক, এটা আমরা মনে করি না। যেটার সঠিক তথ্য পাই, আমরা চেকআউট করি।’

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী জানান, ‘গত এক বছর বিদেশ থেকে রেমিটেন্স এসেছে ১৫ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার (এক হাজার ৫৫০ কোটি ডলার)। এ ছাড়া কর্মী পাঠাতে চুক্তি হয়েছে মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, থাইল্যান্ড, বাহরাইন ও কাতারের সঙ্গে। গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার ঘটনা এসব সাফল্যে কোনো প্রভাব ফেলবে না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘জঙ্গি হামলা শুধু বাংলাদেশে হয় না, জঙ্গি হামলা সৌদি আরবেও হচ্ছে। জনশক্তি রপ্তানির জন্য এ জঙ্গি হামলা কোনো ধরনের প্রভাব ফেলবে না। কারণ আমাদের দেশের কর্মীরা বিদেশে এত সুনাম অর্জন করেছে, বিদেশিরা বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগের জন্য একদম পাগল হয়ে যায়।’

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানোর ক্ষেত্রে গড়ে ওঠা সিন্ডিকেটের ওপর সরকার নজর রাখছে বলে জানান মন্ত্রী।

নুরুল ইসলাম জানান, মোট ছয় লাখ ৮৮ হাজার ৯৫৪ জন কর্মী গত এক বছরে বিদেশে কাজ পেয়েছেন। এর মধ্যে ২০১৬ সালের প্রথম ছয় মাসেই তিন লাখ ৭৭ হাজার ৩১২ জন কর্মী রয়েছেন। চলতি বছরের ডিসেম্বর নাগাদ সাড়ে সাত লাখ কর্মীর বিদেশে কর্মসংস্থান হবে। নতুন নতুন শ্রমবাজার অনুসন্ধান ও বিদ্যমান বাজার ধরে রাখতে মার্কেট পর্যালোচনা করে ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া ও ব্রাজিলসহ ১০টি দেশের শ্রমবাজার সম্পর্কে স্ট্যাডি করে রিপোর্ট করা হয়েছে।

মন্ত্রী জানান, মহিলা গৃহকর্মীদের দক্ষতা উন্নয়নে বাধ্যতামূলক প্রশিক্ষণের মেয়াদ ২১ দিনের পরিবর্তে ৩০ দিন করা হয়েছে। অধিক হারে দক্ষ জনশক্তি রপ্তানির লক্ষ্যে উপজেলা পর্যায়ে ৪৩৯টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

আগামী এক বছরের পরিকল্পনা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, দক্ষ, আধাদক্ষ, স্বল্প দক্ষ ও অদক্ষ কর্মীসহ মোট আট লাখ কর্মী বিদেশ পাঠানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে নারী কর্মীর সংখ্যা এক লাখ ২০ হাজারে উন্নীত করা হবে।

 

ঢাকা, ১৪ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এফআর