[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



লিডিং ভার্সিটিতে জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে সেমিনার


প্রকাশিত: July 16, 2016 , 9:10 pm | বিভাগ: ক্যাম্পাস,প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি,সিলেটের ক্যাম্পাস


LU

লিডিং ভার্সিটি লাইভ: জঙ্গি কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে লিডিং ইউনিভার্সিটির উদ্যোগে “জঙ্গিবাদ এবং সামাজিক সহিংসতা প্রতিরোধে ছাত্র ও শিক্ষকদের করনীয় ” শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বেলা ২.৩০টায় লিডিং ইউনিভার্সিটির সুরমা টাওয়ারের কনফারেন্স হলে এ সেমিনার হয়।

ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর মো. মাহবুবুর রহমান এর সঞ্চালনায় এবং ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডীন এবং ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মো. নজরুল ইসলাম এর সভাপতিত্ব করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন লিডিং ইউনিভার্সিটির রেজিষ্ট্রার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মুনীর আহমেদ কাদেরী (অব.)।

সেমিনারের মূল প্রতিপাদ্য যৌথভাবে উপস্থাপন করেন ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম এবং ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় অ্যাডভাইসর প্রফেসর ড. জহুরুল আলম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লিডিং ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন লিডিং ইউনিভার্সিটির আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ও EEE বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. খন্দকার মো. মমিনুল হকের ।

সেমিনারের প্রতিপাদ্য ছিল “ আমরা জঙ্গিমুক্ত সমাজ চাই”। রেজিষ্ট্রার তার স্বাগত বক্তব্যে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের নির্মল জীবন যাপনের আহবান জানান।

অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর নজরুল ইসলাম বলেন, মানুষিক উন্নতি এবং শারীরিক গঠন বৃদ্ধির উপর পরিবারের গুরুত্ব, আলোচনা ও সময় দেয়া, বিনোদন এবং খেলাধুলা, নিয়মিত ক্লাসরুমে উপস্থিতি, দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, নিয়মনীতি, বিশ্বের বিভিন্ন ঘটনা সম্পর্কে সঠিক ব্যাখ্যা প্রদান এ বিষয়ে শিক্ষকদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে।

ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় এডভাইসর প্রফেসর ড. জহুরুল আলম জঙ্গিবাদকে বৈশ্বিক সমস্যা উল্লেখ করে পারিবারিক ও সামাজিক মূল্যবোধের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি সাম্প্রতিক ঘটনার ওপর আলোকপাত করেন। শ্রেণিকক্ষে কোনো সন্দেহজনক আচরণ দেখলে শিক্ষকদের তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন।

বিশেষ অতিথীর ব্ক্তবে প্রফেসর ড. খন্দকার মো. মমিনুল হক বলেন সমাজে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা এবং জঙ্গিদমন ও এর ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরা যেখানে বিজ্ঞান ও প্রচার ব্যবস্থা সহায়ক হতে পারে। আর তা করতে হবে সামাজিক দায়বধ্যতার জায়গা থেকে।

এমপিএইচ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান কেএমএ শফিক জঙ্গিবাদকে সামাজিক ব্যাধি হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলেন, এর লেভেল আমাদেরকেই খুজে বের করতে হবে।

ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক মো. জিয়াউর রহমান ইসলামের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা ও কারো প্ররোচনায় নর হত্যারমতো জঘন্য কাজ না করার এবং রাসূলের আদর্শ থেকে বিচ্যূতি সহিংসতামূলক কর্মকাণ্ডে ভূমিকা রয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে জঙ্গিবাদ প্রতিহত করতে শিক্ষকদের যথাযথ পাঠদান এবং দিকনির্দেশনা দিতে হবে। শিক্ষার্থীদেরকে পজিটিভলি মটিভেট করতে হবে। ভাল ব্যবহার, সম্মোধন এবং ক্লাসে মনযোগী করে তোলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সভাপতি প্রফেসর মো. নজরুল ইসলাম আশা প্রকাশ করেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা ব্যক্তিগতভাবেই এ ধরনের সামাজিক অবক্ষয় থেকে রক্ষা করতে অগ্রনী ভূমিকা রাখবে। তা না হলে সেশন জট ও ক্যারিয়ার গড়তে দীর্ঘ সময় লেগে যাবে।

সেমিনারে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, ক্লাস মনিটর, কন্ট্রোলার অব এক্সামিনেশনস, সহকারী রেজিষ্ট্রার ও জনসংযোগ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

ঢাকা, ১৬ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এফঅার