[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



রংপুর মেডিকেলে ইন্টার্ন ডাক্তারদের কর্মবিরতি


প্রকাশিত: July 20, 2016 , 8:46 pm | বিভাগ: কলেজ,ক্যাম্পাস,মেডিকেল কলেজ


ramec

লাইভ প্রতিবেদক: অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে গেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা।

বুধবার থেকে এ অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করেছেন ওই মেডিকেলের ইন্টার্ন ডাক্তাররা। একজন রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে তাঁর স্বজনদের হাতে মেডিসিন বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার এবং ইন্টার্নি চিকিৎসক লাঞ্ছিত হওয়ার প্রতিবাদে বিকেল ৩টা থেকে এই কর্মবিরতি শুরু হয়।
হাসপাতালের একজন ইন্টার্নি চিকিৎসক মাহফুজুল হক জানান, ‘হামলাকারীদের গ্রেপ্তার, চিকিৎসকদের নিরাপত্তা ও ক্যাম্পাসে স্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনের দাবিতে আমরা ইন্টার্নি চিকিৎসকেরা জরুরি সভা করে এই কর্মবিরতির সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত কর্মবিরতি চলবে।’

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, শহরের গনেশপুর বকুলতলা এলাকার ব্যবসায়ী মনির হোসেন (৪০) ঢাকা থেকে ফেরার পথে আজ বুধবার ভোরে বাসেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁর স্বজনেরা প্রথমে তাঁকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সকাল সাতটার দিকে তাঁকে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সকাল নয়টার দিকে তিনি মারা যান।

চিকিৎসায় অবহেলায় মনিরের মৃত্যু হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে তাঁর স্বজনেরা মেডিসিন বিভাগের রেজিস্ট্রার জহুরুল ইসলামকে মারধর করেন। এ সময় ইন্টার্নি চিকিৎসক নাহিদ হোসেন এগিয়ে এলে তাঁকেও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয়। এ সময় রোগীর স্বজন ও ইন্টার্নি চিকিৎসকদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ঘটনা জানার পর পরই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শহরের ধাপ পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বে নিয়োজিত উপপরিদর্শক (এসআই) গোলাম কিবরিয়া জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহত ব্যক্তির খালাতো ভাই খায়রুজ্জামান অভিযোগ করেন, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকও মনিরকে (রোগী) দেখতে আসেননি। তাঁর প্রতি অবহেলা করা হয়েছে। মনির বাসে ওঠার আগেই ঢাকায় অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে গাড়িতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, অনেক দেরিতে তাঁকে হাসপাতালে আনা হয়। ততক্ষণে তাঁর রক্তে বিষক্রিয়া ঝড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালের ভর্তির পর রোগীকে যথাযথ চিকিৎসাও দেওয়া হয়েছে। এদিকে ধর্মঘটে যাওয়া ইন্টার্নি চিকিৎসকদের কাজে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান। চিকিৎসকদের একটি বিশেষ দল জরুরি চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন।

ঢাকা, ২০ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এফআর