[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



কোচিং না করায় পরীক্ষা হলে ঢুকতে দেয়া হয়নি ৩০ শিক্ষার্থীকে


প্রকাশিত: July 24, 2016 , 8:27 pm | বিভাগ: এক্সাম,বরিশালের ক্যাম্পাস,স্কুল


bargona dist
বরগুনা লাইভ: কোচিং এ ক্লাস না করায় বরগুনা জেলার আমতলী চলাভাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার হল থেকে বের করে দিয়েছেন।
ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবির এ কাজ করেছেন।

সংশ্লিস্টরা জানান, প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবির শিক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলক কোচিং ক্লাস করার জন্য চাপ প্রয়োগ করতেন। কিন্তু কোচিং ছিলনা মান সম্মত। একারণে অনেকেই ওই করতেন না।গত বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীদের ডেকে বাধ্যতামূলক কোচিং ক্লাসে আসার জন্য নির্দেশ দেন প্রধান শিক্ষক। একই সঙ্গে কোচিং করতে না এলে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলে শাসিয়ে দেন।
গত শনিবার বিকালে ছিল দশম শ্রেণীর ভুগোল পরীক্ষা। পরীক্ষা শুরু হলে শিক্ষার্থীরা কক্ষে প্রবেশ করে। এ সময় দশম শ্রেণীর সাবিহা, লুনা, নাসরিন, জাহিদ, জাকারিয়া, তানজিলা, মাসুম বিল্লাহ ও মেহেদী হাসান এবং অষ্টম শ্রেণীর সাবিনা, শাকিল, সায়েম, সাব্বির, বনি, মহিমা, শারমিন, মেহেরুন্নেছা ও সজীবসহ ৩০-৩৫ শিক্ষার্থীর পরীক্ষা না নিয়ে কক্ষ থেকে বের করে দেন। তাদের অপরাধ তারা প্রধান শিক্ষকের নির্দেশমতো বৃহস্পতিবার রাতে কোচিং ক্লাসে আসেনি।
এ নিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ করলে প্রধান শিক্ষক জানিয়ে দেন কোচিং ক্লাসে না এলে বিদ্যালয়ে আসার প্রয়োজন নেই। শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা না দিয়ে বাড়ি চলে যায়। এ বিষয়ে দু’শিক্ষার্থী দশম শ্রেণীর সাবিহা ও অষ্টম শ্রেণীর সাবিনা আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম দেলওয়ার হোসেনের কাছে লিখিত অভিযোগ করে।
প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি কাউকে কোচিং ক্লাস করতে বাধ্য করিনি এবং পরীক্ষার হল থেকে বের করে দিইনি। কেন শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই।
আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম দেলওয়ার হোসেন জানান, অভিযোগ পেয়েছি। উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

 

ঢাকা, ২৪ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এএম