[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ বিভাগে নিষিদ্ধ সংগঠনের নেটওয়ার্ক


প্রকাশিত: August 6, 2016 , 12:38 pm | বিভাগ: এক্সক্লুসিভ,পাবলিক ইউনিভার্সিটি


shah-jalal-un

চিন্ময় সরকার ও নবীউল আলম দিপু : কড়া নজরদারিতে রয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বিশেষ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থীদের কড়া নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে। এসব বিভাগে কারা কারা নিখোঁজ রয়েছেন এবং কারা কারা অনিয়মিত তাদের তালিকা করা হচ্ছে। এব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগের নিখোঁজ ও অনিয়মিত ছাত্রদের তালিকা চেয়ে চিঠি দিয়েছে।

জানা গেছে, শাবিতে মূলত ৪টি বিভাগ ঘিরে নিষিদ্ধ সংগঠনের কার্যক্রম চলছে। সম্প্রতি জঙ্গি সন্দেহে আটক শাবির ৩ ছাত্রের কাছ থেকে পাওয়া প্রাথমিক তথ্য ও  অতীতের ইতিহাস এবং গোয়েন্দা সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। ২০০৯ সালে হিজবুথ তাহরির নিষিদ্ধ হলেও শাবিতে এর উত্থান থেমে থাকেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগকে ঘিরে তাদের কার্যক্রম চলতে থাকে। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে প্রকাশ্যে তারা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে থাকে।

ওই সময় নিষিদ্ধঘোষিত হিজবুথ তাহরিরের শক্ত ঘাটি ছিল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়। এনিয়ে পত্র-পত্রিকায় একাধিক সংবাদও হয়েছে। সেসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন প্রভাবশালী শিক্ষকও নিষিদ্ধ সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে গোয়েন্দাদের কাছে তথ্য রয়েছে। তবে পরবর্তীতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া নজরদারির কারণে হিজবুথের নেটওয়ার্ক অনেকটা দুর্বল হয়ে যায়। সেসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ বিশেষ করে
ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাকশন এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই), কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (সিইপি), সিভিল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং (সিইই) বিভাগের কতিপয় শিক্ষার্থীদের নামে জঙ্গিবাদের তকমা লাগে। এর বাইরে ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগেও জঙ্গিদের নেটওয়ার্কের তথ্য পায় পুলিশ।

২০০৯ সাল থেকে চলতি বছর পর্যন্ত বিভিন্ন সময় হিজবুথ তাহরিরের কয়েক ডজন সক্রিয় সদস্যকে আটক করে পুলিশ ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এদের বেশ কয়েকজনকে ক্যাম্পাসের বাইরে সিলেট নগরী থেকেও গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকে শাবিতে নিষিদ্ধ সংগঠনের নেটওয়ার্কের ব্যাপারে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেছে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

জানা গেছে, গ্রেফতারের পরে বেশ কয়েকজন ছাত্র বিভিন্নভাবে জামিনে মুক্ত হয়ে আবারও জঙ্গিদের নেটওয়ার্কের আওতায় কার্যক্রম চালাচ্ছে। অত্যন্ত কৌশলে তারা আবার কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

এদের মধ্যে অনেকেই বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করে বের হয়ে গেলেও তারা ছোট ভাইদের সাংগঠনিক দায়িত্ব দিয়ে গেছেন। বড় ভাইদের পরামর্শ নিয়েই কথিত ছোট ভাইরা শাবিতে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

সম্প্রতি অানসারুল্লাহ বাংলা টিম (এবিটি) নামে জঙ্গি সংগঠনের নাম অালোচনায় এসেছে শাবিতে। গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে শাবির ৩ জন ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। তাদের দুইজনকে শাবি ক্যাম্পাস থেকে এবং একজনকে সিলেট নগরী থেকে আাটক করে আাইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। যাদের এবিটির সদস্য বলে দাবি করেছে পুলিশ। তাদের দুজন ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাকশন এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষাথী। বাকী একজন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। তারা হল আইপিই বিভাগের আজিজ, ইফফাত আহমেদ নাহিদ ও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের জুয়েল আহমদ। এদের মধ্যে একজন বিশ্ববিদ্যাবলয়ে এবিটির সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।  হিজবুথের নিষিদ্ধ সদস্যরা এবিটির সদস্য হিসেবে কাজ করছে কিনা এবিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগেও শাবিতে জঙ্গি সন্দেহে যাদের আাটক করা হয়েছিল তাদের ব্যকগ্রাউন্ড হিসেবে উপরে উল্লিখিত ৪টি বিভাগের নামই উঠে এসেছে। ঘুরে ফিরে সবসময় আইপিই, সিপিই, সিইই ও বিবিএর নামই উঠে আসছে।বারবার ওই বিভাগগুলোর নাম চলে আসায় কড়া নজরদারিতে রয়েছে এসব বিভাগের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকরাও নজরদারির বাইরে নয় বলে সূত্র জানিয়েছে।

জালালাবাদ থানার ওসি আকতার হোসেন ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, জঙ্গিদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়কে কড়া নজরদারিতে রাখা হয়েছে। বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বিভাগগুলোতে একটু বাড়তি সতর্কতা রাখা হয়েছে। হিজবুথের সদস্যরা বর্তমানে এবিটির হয়ে কাজ করছে কিনা এবিষয়ে তিনি কিছু বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

শাবির ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর প্রফেসর ড. রাশেদ তালুকদার ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে কারা অনিয়মিত এব্যাপারে তালিকা চাওয়া হয়েছে বিভিন্ন বিভাগে। বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগগুলোতে আমাদের কড়া সতর্কতা রয়েছে।

ঢাকা, ০৬ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন