[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



বিদায় বেলা রঙের খেলা


প্রকাশিত: September 2, 2016 , 6:20 pm | বিভাগ: আপডেট,ফিচার


sust
আব্দুল্লাহ আল মনসুর: আজকের দিনের মতো আনন্দ হয়ত জীবনে আর কোনো দিন পাব না! দেখতে দেখতে চার চারটি বছর চলে গেল। টেরই পেলামনা! হয়তো ফেলে আসা দিনগুলি আর ফিরে পাব না। তবে আজকের দিনটিতে আমরা ফেলে আসা দিনগুলিকে খোঁজার চেষ্টা করেছি। অনেক বেশি আনন্দ পেয়েছি।

কথাগুলো শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ২০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী জাহিদা সুলতানা মুক্তির। শিক্ষা সমাপনী উৎসব উদযাপনকালে ভারাক্রান্ত মনে তিনি এসব কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আমাদের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ২০ তম ব্যাচ অর্থাৎ ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা মেতে উঠেছিলাম শিক্ষা সমাপনী উৎসবে।

sust-2

ঘড়ির কাটা দুপুর ১১টা বেজে সময় গড়াতে থাকে। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে শিক্ষার্থীর সংখ্যা। একে একে ক্যাম্পাসে হাজির হয় আমাদের সহপাঠীরা।

সবার গায়ে সাদা রঙের টি-শার্ট। একবন্ধু অন্যবন্ধুর টিশার্টে লিখছে উদ্ভব টাইপের কমেন্টস! আজ শেষ হতে চলেছে তাদের শিক্ষা জীবনের সম্মান পর্ব। এ বাঁধন ছিড়ে তাই কেউ কাউকে ভুলতে চান না। এমন সব চিত্র ফুটে উঠেছে তাদের কমেন্টসের মধ্যে। এরই মাঝে এই মিলন মেলা পরিনত হল আবেগ আর উচ্ছাসের উৎসবে।
শিক্ষা সমাপনী উৎসব উপলক্ষে ১২টায় বের করা বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। ২০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছাড়াও শোভাযাত্রায় অংশ নেন বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. জসিম উদ্দিন, অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর মো. ফারুক উদ্দিন, মো. আল আমীনসহ অন্যান্য ব্যাচের শিক্ষার্থীরাও।

শোভাযাত্রায় গানের তালে তালে নেচে আনন্দ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে শিক্ষার্থীরা। শোভাযাত্রাটি পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে একাডেমিক ভবন ‘ডি’ এর সামনে এসে শেষ হয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা প্রিয় শিক্ষকদের সাথে ফটোসেশন করে। পরে একাডেমিক ভবন ডি এর সামনে কেক কাটা হয়। রাতে আয়োজন করা হয় গ্রান্ড ডিনার।

2

শিক্ষা-সমাপনী উৎসব উদযাপন নিয়ে ব্যাচের শিক্ষার্থী তোফায়েল আহমেদ বলেন, সবার অংশগ্রহণে আমাদের আয়োজন সফল হচ্ছে। আশাকরি সবাই এই দিনটিকে সারা জীবন মনে রাখবে। একই ধরনের মন্তব্য করেন নজরুল ইসলাম।
শিক্ষা সমাপনী উৎসব সফল করার জন্য দিন রাত পরিশ্রম করেন আলী, আহসান, ইমন, আবীর।

3

হয়তো আমাদের ক্যাম্পাস লাইফ শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু কলি, জাহিদ, তুহিন, গিয়াস, মঞ্জুরুল, মোশাররফ,আজমীর, এনামুল, আদনান, সেলিম, আতিক, শুভ, দীপঙ্কর, জাহিদ, জিতেশ,নাদিম, কামরুল, মিতালী, তৌহিদ, তানিম, জুয়েল, নিলাদ্রী, মিমি, তানিয়া, জেবিন, সুজন, অন্তিক, তুলি, টনি,শাশ্বতি, শতাব্দী,রাজন, মাহী, শিরিন, দিতি, নিগার, শাফি, মুক্তা, আফসানা, মৌসুমী, মুমু, ইমরান, নূপুর, অনুকা, টুম্পাদের মতো বন্ধুদের সাথে কাটানো মুহুর্তগুলো কখনো শেষ হবে না। স্মৃতি হয়ে থাকবে হৃদয়ে।

লেখক: শিক্ষার্থী, সমাজবিজ্ঞান বিভাগ, ২০তম ব্যাচ(২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষ), শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

 

ঢাকা, ২ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এফআর