[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



স্বপ্নের ফাইনালে বাংলাদেশ


প্রকাশিত: September 30, 2016 , 4:34 pm | বিভাগ: আন্তর্জাতিক খেলা,স্পোর্টস


Hoki

স্পোর্টস লাইভ: প্রথমবারের মতো বেক্সিমকো অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকির ফাইনালে উঠেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। গতকাল মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে শেষ চারের লড়াইয়ে চাইনিজ তাইপেকে ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

আশরাফুল ইসলাম গতকালও ঝলক দেখিয়েছেন টার্ফে। তিনি একাই করেন তিন গোল। আর একটি করে গোল এসেছে রাজু আহম্মেদ, সজীব ও রাব্বি। এই তিন গোলের সুবাদে ১০ গোল নিয়ে গোলদাতাদের তালিকার শীর্ষে উঠে আশরাফুল।

এদিকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত। একই ভেন্যুতে ভারত জিতেছে ৩-১ গোলের ব্যবধানে। আজ বিকাল ৩টায় এই দুই দলের মধ্যে ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

২০০১ সালে অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপের প্রথম আসর বসেছিল মালয়েশিয়াতে। দশ দলের ওই টুর্নামেন্টে পঞ্চম হয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর ২০০৯ ও ২০১১ সালে দুটি আসরে অংশ নেয়নি লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। তাই ঘরের মাঠে চতুর্থ আসরে বাংলাদেশের কাছে প্রত্যাশা একটু বেশিই ছিল। এরই মধ্যে গ্রুপ পর্বে নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছে লাল-সবুজ শিবির।

গ্রুপ পর্বে ভারতকে ৫-৪ ও ওমানকে ১০-০ গোলে হারানো স্বাগতিকদের জয়টা এই ম্যাচেও বড় হতে পারতো। যদি পেনাল্টি কর্নারে গোল আদায়ে ব্যর্থ না হতেন স্বাগতিক খেলোয়াড়রা। এদিন দুই অর্ধ মিলিয়ে এগারটি পেনাল্টি কর্নার পেয়েছিল রোমান সরকার বাহিনী। সেখান থেকে গোল করেছেন মাত্র চারটি।

তাই শেষ পর্যন্ত ৬-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় স্বাগতিকদের। চাইনিজ তাইপের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ম্যাচ শুরু হওয়ার তিন মিনিটের মধ্যেই লাল-সবুজদের আনন্দে মাতিয়ে তুলেন পেনাল্টি কর্নার স্পেশালিস্ট আশরাফুল ইসলাম।

পেনাল্টি কর্নার থেকেই গোলটি করেন আগের দুই ম্যাচে ৭ গোল করা এ ডিফেন্ডার (১-০)। নবম মিনিটে ম্যাচে ফেরার সুযোগ এসেছিল সফরকারীদের সামনে। কিন্তু পেনাল্টি স্ট্রোক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন চাইনিজ তাইপের চেঙ পাঙ শি। এরপর টানা দুটি পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল ব্যবধান বাড়াতে পারেনি টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তবে ২৮ মিনিটে রাজু আহম্মেদের ফিল্ড গোলে ঠিকই এগিয়ে যায় কাওছার আলীর শিষ্যরা (২-০)। প্রথমার্ধে আরো একটি পেনাল্টি কর্নার পেয়েছিল স্বাগতিকরা।

কিন্তু সে সুযোগটাও কাজে লাগাতে পারেনি আশরাফুল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান একটু কমিয়ে আনে চাইনিজ তাইপে। পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল পরিশোধ করেন তু যু হুয়াঙ (২-১)। গোল হজমের পর আবারো আশরাফুল ঝলক দেখে মাঠে হাজির হওয়া শ’পাঁচেক দর্শক। চার মিনিটের ব্যবধানে দুটি গোল করেন তিনি।

পেনাল্টি স্ট্রোক থেকে একটি অপরটি পেনাল্টি কর্নার থেকে (৪-১)। এরপর আরো দুটি পেনাল্টি কর্নার পেলেও তা থেকে গোল আদায়ে ব্যর্থ হন এ গোল মেশিন। তাই ৬০ মিনিটে পাওয়া দলের দশম পেনাল্টি কর্নার নেন সজীব। তাতেই সফলতা আসে (৫-১)। পাঁচ মিনিট পর পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল মিস করেন সজীব।

তবে মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে ফিল্ড গোল করে অর্ধডজন গোল পূর্ণ করেন রাব্বী (৬-১)। উল্লেখ্য, ঘরের মাটিতে চলতি এ আসরে গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী ভারতকে ৪-৫ ও ওমানকে ১০-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল বাংলাদেশ।

ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর, (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// আইএইচ