[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



আফ্রিদি-মিয়াঁদাদের ঝগড়ার অবসান!


প্রকাশিত: October 15, 2016 , 11:26 pm | বিভাগ: স্পোর্টস


Afiridi-miandad+CL+BD

স্পোর্টস লাইভ: বলা নেই, কওয়া নেই। হঠাৎই যুদ্ধ বিরতির প্রস্তাব! শুধু বিরতিই নয়, একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে আফ্রিদি আর জাভেদ মিয়াঁদাদ ঘোষণা দিয়েছেন, যা হয়েছে হয়েছে, এ নিয়ে আর নতুন করে কোন কিছুকে এগুতে দেবেন না তারা।

গত কয়েকদিন ধরে পাকিস্তান ক্রিকেটে তোলপাড় শহিদ আফ্রিদি আর জাভেদ মিয়াঁদাদের মধ্যে ঝগড়া নিয়ে। সাবেক ক্রিকেটার থেকে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডও বেশ বিরক্ত দু’জনের এই নোংরা যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার কারণে। ওয়াসিম আকরাম সরাসরি প্রস্তাব দিয়েছেন মধ্যস্থতা করার। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডও শেষ পর্যন্ত নাক গলাতে বাধ্য হয়েছে বড়ে মিয়াঁ-ছোটে মিয়াঁর ঝগড়া থামাতে।

এরই মধ্যে আবার বড়ে মিয়াঁর বিয়াই সাহেব, বিখ্যাত আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিম ছোটে মিয়াঁ আফ্রিদিকে হুমকিও পাঠিয়েছেন বলে খবর বেরিয়েছে। আগেরদিনই খবর বেরিয়েছিল, আফ্রিদির হয়ে মোহাম্মদ নাঈম খান নামে ইসলামাবাদ ভিত্তিক এক আইনজীবী জাভেদ মিয়াঁদাদকে কারণ দর্শাণোর নোটিশও (লিগ্যাল নোটিশ) পাঠিয়েছেন।

আজ হঠাৎ করেই পিটিভি নিউজ তাদের ফেসবুক পেজে আফ্রিদি-মিয়াঁদাদ একে অপরকে মিষ্টি খাওয়াচ্ছেন এমন একটি ছবি প্রকাশ করেছে। সেখানে আবার তারা লিখেছে যে, আফ্রিদি এবং মিয়াঁদাদ আজ সাক্ষাৎ করেছেন এবং ঝগড়া মিটিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

পাকিস্তানের দুনিয়া নিউজ এবং দ্য নিউজ রিপোর্ট প্রকাশ করেছে যে, আজ শনিবারই দু’জন সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে। দুনিয়া নিউজ জানিয়েছে, আফ্রিদির প্রতি ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ এনে যে বক্তব্য দিয়েছিলেন মিয়াঁদাদ, সে বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিতে রাজি হয়েছেন বড়ে মিয়াঁ। আফ্রিদির একটাই দাবি ছিল, মিয়াঁদাদ যদি ওই বক্তব্য প্রত্যাহার করে নেন, তাহলে তিনি এ নিয়ে আর সামনে এগুবেন না। যদি প্রত্যাহার না করেন, তাহলে তিনি আইনি পথে হাঁটবেন।

অবশেষে মিয়াঁদাদ তার বক্তব্য প্রত্যাহার করার ফলেই বরফ গলে দু’জনের মধ্যে। পিটিবি নিউজের সংবাদ অনুযায়ী একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে সে ঝগড়াও মিটিয়ে ফেলেছেন দু’জন।

আফ্রিদি ফেয়ারওয়েল ম্যাচ খেলতে চান টাকার জন্য। প্রথম এমন মন্তব্য করেছিলেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। এরপর আফ্রিদি মন্তব্য করেছিলেন, তিনি টাকার কাঙাল। এ কথা শুনে ক্ষিপ্ত মিয়াঁদাদ এক টিভি সাক্ষাৎকারে বলেন, আফ্রিদি ম্যাচ ফিক্সিং করতেন। তার নেতৃত্বে পুরো দলই ম্যাচ ফিক্সিং করেছে। আফ্রিদি দেশকে বিক্রি করে দিয়েছে।

এ বক্তব্য শোনার পর আফ্রিদি বলেন, এমন কেউ নেই যে আমার বিরুদ্ধে দেশকে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ আনতে পারে। তিনি আমার বড় ভাইয়ের মত। তাকে সম্মান করি। তবে যা বলেছেন, তিনি তা যদি প্রত্যাহার করে না নেন, তাহলে আমি আদালতে যাবো এবং আদালতই ঠিক করবে কে সঠিক। কারণ, এই বক্তব্যে আমার এবং আমার পরিবারের মানহানি হয়েছে।

মিয়াঁদাদ পরে বলেন, তিনি আফ্রিদিকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। আফ্রিদি এটা শুনে বলেছিলেন, আমি খুশি হয়েছি, তিনি আমাকে ক্ষমা করেছেন। তবে, তিনি যদি ফিক্সিংয়ের মন্তব্য প্রত্যাহার না করেন, তাহলে আমি আইনি পথে হাঁটবো। এমনকি শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি আইনজীবীর সঙ্গেও এ নিয়ে কথা বলেন। অবশেষে বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিলেন মিয়াঁদাদ এবং আফ্রিদিও এতে খুব খুশি।

 

ঢাকা, ১৫ অক্টোবর, (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এএসটি