[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



সবজি বিক্রেতার ঘর থেকে মেডিকেলে চান্স


প্রকাশিত: October 18, 2016 , 1:42 am | বিভাগ: আপডেট,মেডিকেল কলেজ


Rajshahi-live4

রাজশাহী লাইভ : বাবা হজরত আলী সবজি বিক্রি করে সংসার চালান। পরিবারে সদস্য সংখ্যা ৬ জন। তিন ভাই ও এক বোন। নুন আনতে পান্তা ফুরোয় অবস্থা। এমন দরিদ্র পরিবারে বেড়ে উঠেছে অদম্য মেধাবী আব্দুল আলিম।

অখ্যাত এক মাদ্রাসায় পড়া আব্দুল আলীম সম্প্রতি প্রকাশ হওয়া মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ডাক্তারি পড়ার সুযোগ পেয়েছেন। আলীম রংপুর মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস সুযোগ পেয়েছেন। এমন খুশির খবরেও আনন্দের ছিটেফোটা নেই আলীমদের সংসারে। মেডিকেল কলেজে পড়ার যে খরচ দরকার তা পরিবারের পক্ষে যোগান দেওয়া শুধু কঠিনই নয়-অসম্ভবও। অদম্য মেধাবী আব্দুল আলীমের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদরের নয়াগোলার বালুগ্রামে।

আব্দুল আলীম সাংবাদিকদের জানান, মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য ইতোমধ্যে পোষা একমাত্র গরুটিও বিক্রি করতে হয়েছে বাবা হজরত আলীকে। এখন পুরো পরিবারটি আরো দুশ্চিন্তায় পড়েছে। মেডিকেলে পড়ানোর কোনো উপায়ই তাদের কাছে নেই।

স্থানীয়রা জানান, হজরত আলী প্রতিদিন বাজারে সবজি বিক্রি করে যে আয় করেন তা দিয়েই সংসার চালায়। বড় ছেলে কাউসার আলী বিয়ে করে নিজ সংসার নিয়ে আলাদা থাকেন। সংসারে এখন আব্দুল আলীম ও দশম শ্রেণীতে পড়া ছোট ছেলে আব্দুল আজিম ছাড়াও ছোট মেয়ে মাহমুদা অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। স্কুল মাদ্রাসা গ্রামের মধ্যে থাকায় ছেলে মেয়েদের পড়ানোর চেষ্টা করেন হজরত।

আব্দুল আলীম জানান, স্থানীয় বালিয়াডাংগা ডি এস ফাজিল মাদরাসা থেকে তিনি দাখিল (এসএসসি) ও আলিম (এইচএসসি) পাশ করেছেন। দাখিল পর্যন্ত তার বাবা কোনোমতে তাকে লেখাপড়া করিয়েছেন। এরপরে আলিমে উঠার পরে খরচ চালাতে না পারার জন্য পরিবার তার হাল ছেড়ে দেয়। এসময় তার সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন রেজাউল করিম ওরফে মানিক নামের একজন শিক্ষক। ওই শিক্ষকের সহযোগিতায় সে আলিম পাশ করে।

আব্দুল আলিমের বাবা হজরত আলী জানান, ছেলের ভর্তির জন্য অনেক টাকা লাগবে। বাড়িতে একটি টাকাও জমানো নাই। সে কারণে বাড়ির একমাত্র পোষা গরুটি বিক্রি করে দেয়া হয়েছে। ছেলের লেখাপড়ার খরচ কেমন করে জোগাড় করবেন তা নিয়ে খবু দুশ্চিন্তায় আছেন তিনি। ছেলেকে ডাক্তার করার স্বপ্ন সে কখনোই দেখেনি। কিন্তু এখন সে সুযোগ আসায় তিনি স্বপ্ন দেখলেও ছেলেকে কীভাবে পড়াবেন সেই চিন্তা বড় হয়ে উঠেছে। তিনি সমাজের বিত্তবানদের মেধাবী আলীমের সহায়তায় এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন। হজরত আলী আরো বলেন প্রয়োজনে ডাক্তার হয়ে আলীম তাদের সব ঋণ শোধ করে দেবে।

 

 

ঢাকা, ১৮ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন