[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



রাবি ছাত্রের লাশ ড্রেনে : পরিকল্পিত হত্যা নাকি আত্মহত্যা!


প্রকাশিত: October 20, 2016 , 12:49 pm | বিভাগ: আপডেট,পাবলিক ইউনিভার্সিটি,রাজশাহীর ক্যাম্পাস


lipu-5

রাবি লাইভ : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার সকালে মোত্তালিব হোসেন লিপু। নামে এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা এনিয়ে রহস্য তৈরি হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এটি একটি হত্যাকাণ্ড। কে বা কারা রাতের আধারে তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে গেছে। তাকে হল থেকে ডেকে নিয়েও হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

প্রাথমিকভাবে পুলিশও ধারণা করছে এটি একটি হত্যাকাণ্ড। লিপুর পিঠে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে ময়না তদন্তের আগে কিছু বলা যাবে না বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানে হায়েছে।

আবার কেউ কেউ বলছেন এটি একটি আত্মহত্যা। হল থেকে লাফিয়ে পড়ে লিপু আত্মহত্যা করেছে। তবে কেন তিনি আত্মহত্যা করেছেন এ হিসাব মেলানো যাচ্ছে না। লিপুর সঙ্গে কোন মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল কিনা তা কেউ বলতে পারছে না। তার ফেইসবুকেও এমন কোন তথ্য নেই। ফেইসবুকে এমন কোন স্ট্যাটাসও নেই। কিংবা ফেইসবুকে হতাশাগ্রস্থ কোন স্ট্যাটাস নেই।

জানা গেছে, ৬ মাস আগে হলে উঠেছিল লিপু। শান্তশিষ্ট ওই ছেলেটি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। তিনি নাবাব আব্দুল লতিব হলের ২৫৩ রুমের আবাসিক ছাত্র। তার বাড়ি ঝিনাইদহ জেলার হরিনাকুন্ড থানায়। সংস্কৃতমনা লিপু রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন না তিনি। তবে ছাত্রলীগের রেফারেন্সেই তিনি হলে উঠেছিলেন।

এদিকে কোন মেয়ের সঙ্গে লিপুর প্রেম ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে তার সহপাঠীদের মতে লিপুর সঙ্গে কোন মেয়ের ভালোবাসার সম্পর্কের কথা তাদের জানা নেই। তবে কেন তার মৃত্যু হয়েছে এ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মনিরুল ইসলাম নামে বোটানি দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। তিনি লিপুর রুমমেট।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হলের কয়েকজন শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাত ৩ টার দিকে হঠাৎ করে হলের ডাইনিংয়ের পাশে প্রচন্ড আকারের একটা শব্দ পাওয়া যায়। তারা বিষয়টাকে স্বাভাবিক ভাবে নেয় বলে তারা জানায়।

হলের ডাইনিংয়ের কর্মচারী রিনা আক্তার বলেন, সকালে ডাইনিং খোলার পরে প্রতিনিদিনের মতো সবকিছু পরিষ্কার করতে ছিলাম। কিছু ময়লা হলের পিছনে ফেলতে গেলে ওই শিক্ষার্থীর লাশ পড়ে থাকতে দেখি। পরে অন্যান্য কর্মচারীকে বললে তারা সকলে আসে।

রুমমেট মনিরুল ইসলামের (বোটানি দ্বিতীয় বর্ষ) সাথে কথা বলে জানা যায়, রাত ১ টা পর্যন্ত আমরা দুইজনই বই পড়ছিলাম। পরে রুমের বাতি বন্ধ করে আমি ঘুমিয়ে পড়লে সে টেবিল ল্যাম্প জ্বালিয়ে পড়ছিল। তবে এর পরে আমি আর কিছু বলতে পারছি না। সকালে উঠে দেখি সে রুমে নেই আর রুমের দরজা খোলা। আমি ভাবলাম হয়তো সকালে উঠে বাথ রুমে গেছে। এ চেয়ে আমি আর কিছু জানি না।

এদিকে মতিহার থানার ওসি হুমায়ুন করিব বলেন, লতিব হলে এক শিক্ষার্থীর লাশ পড়ে আছে এমন এক সংবাদের  ভিত্তিতে হলে আসলে তার লাশ পড়ে থাকতে দেখি। ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে (রামেকে) মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন প্রাথমিকভাবে এটি একটি হত্যাকাণ্ড বলেই মনে হচ্ছে। তবে ময়না তদন্তের আগে কিছু নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।

রাবি//এমইএন, ২০ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন