[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



গ্রামে চলেছে মাছ ধরার উৎসব


প্রকাশিত: October 20, 2016 , 6:57 pm | বিভাগ: ন্যাশনাল


shakil

মাগুরা লাইভ : কিছুদিন আগে নদী-নালা, খাল-বিল, পুকুরে কানাই কানাই পরিপূর্ণ হয়ে গিয়েছিল বৃষ্টির পানিতে। মাঠ-ঘাট পানিতে সাদা হয়ে  গিয়েছিল। যেমন মাঠের ফসল বৃষ্টির পানিতে তলিয়েছিল তেমনি মাছের ঘেরও। এখন নদী-নালা, খাল-বিলের পানি কমতে শুরু করেছে।

শুরু হয়েছে সর্বত্র মাছের আনাগোনা। জেলেদের পাশাপাশি সৌখিন মাছ শিকারীরা ব্যস্ত হয়ে পড়ে মাছ ধরতে। ভোর হতে না হতেই কাধে জাল ও হাতে হাড়ি নিয়ে মাছ ধরতে বেরিয়ে পড়ছে মাছ শিকারীরা। আবার অনেকে গভীর রাত পর্যন্ত মাছ ধরতে ব্যস্ত সময় পার করছে। মাগুরা জেলার সদর উপজেলার জাগলা গ্রামের বড় বিল এবং লক্ষিপুর  স্লুইজ গেটসহ বিভিন্ন স্থানে চলছে মাছ ধরার উৎসব। ছেলে বুড়ো যুবক এমন কি স্কুল কলেজে পড়ুয়া ছাত্ররা একের পর এক জাল ফেলেই চলেছে। জাল ওঠানোর সাথে সাথেই উৎসুক জনতার চিৎকার শুরু হয়ে যাচ্ছে।

প্রচুর মাছ ধরা পড়ছে জালে। মাছ ধরে নিজেদের চাহিদা মিটিয়ে বাকিটা বিক্রি করা হচ্ছে হাট বাজার ও মোড়ে মোড়ে। কেউ গামলা, কেউ বালতি, কেউ হাড়ি এমন ভাবে যে যেমন পাত্রে পারছে তাতে করে মাছ নিয়ে যাচ্ছে বিক্রি করতে।

shakil3
বৃহস্পতিবার জাগলা গ্রামের বাবুল নামক একজন সৌখিন মাছ শিকারী তিন হাজার দুইশত টাকার মাছ বিক্রি করেছেন বলেও জানান গ্রামবাসী। এমনিভাবে প্রত্যেকেই মাছ বিক্রয় করছেন বলেও জানা যায়। আবার দেখা গেছে কেউ কেউ জাল খেপিয়ে খেপিয়ে ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছেন কিন্তু পুটি ছাড়া কিছুই পাচ্ছেন না। তাবে তাদের কথা হচ্ছে মাছে ধরে বিক্রয় করাটা তাদের মুখ্য বিষয় নয় জাল ফেলে তারা আনন্দ পান বলেই তারা মাছ ধরতে বেরিয়েছেন। যা পাচ্ছেন তাতেই তারা সন্তুষ্ট বলে জানান।

জাগলা গ্রামের একজন সৌখিন মাছ শিকারী মোঃ শাকিল এর সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন বিলটিতে পানি থাকায় মাছ অনেক বড়েছে। এখন তারা অবসর সমায় কাটাতে পারছেন সেই সাথে  মাছ ধরতে পেরেও আনন্দ উপভোগ করছেন।

আর দুইজন সৌখিন মাছ শিকারী আল-আমিন এবং সাজ্জাত, তারা জানান তাদের ফসলের ক্ষেত পানিতে তলিয়ে গিয়ে ব্যপক ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন। তাদের মন খুব একটা ভালো না তাইতো মাছ ধরতে এসেছে লক্ষিপুর খালে। জালে মাছ উঠছেও অনেক। জাল ফেলে মাছ উঠছে সাথে তার মনও ভালো থাকছে। মাছ ধরে ফসলের ক্ষতির কথা ভুলে থাকার চেষ্টা করছে।

shakil4
এমনি আরোও কয়েকজন মাছ শিকারীর সাথে কথা বল্লে,আল-আমিন এবং সাজ্জাতের মত একই উত্তর পাওয়া যায়। তবে সকলের মাছ ধরার আনন্দ ও উৎসুক জনতাকে দেখে বোঝা যাচ্ছে গ্রাম গঞ্জের পাশাপাশি শহরেও চলছে মাছ ধরার উৎসব। দূর দূরান্ত থেকে মানুষ  এখানে মাছ ধরতে আচ্ছে । এবং অস্থায় কুড়েঘর পেতে রাত যাপন করছে মাছের আসাই।

ঢাকা,২০ অক্টোবর, (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এম এইচ