[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



ইবি ভিসির সাথে শিক্ষকদের মতবিনিময়


প্রকাশিত: October 20, 2016 , 9:06 pm | বিভাগ: আপডেট,খুলনার ক্যাম্পাস,পাবলিক ইউনিভার্সিটি


IB

ইবি লাইভ: বাংলাদেশ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এখানে সবচেয়ে বেশি দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর। আবার এর মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদগুলোর দায়িত্ব সব থেকে বেশি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজ্যুয়েল ক্লাসরুমে ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময়কালে ভিসি প্রফেসর ড. মো: হারুন-উর-রশিদ আসকারী একথা বলেন।

তিনি বলেন, মানুষ গুহাবাসী থেকে চন্দ্রগ্রামী হতে পেরেছে তার কারণ বিজ্ঞান। ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাতিঘর। সবচেয়ে বেশি অবদান রাখার যোগ্যতা এই অনুষদের রয়েছে। আমার যে কর্মপদ্ধতি, আমার যে স্বপ্ন তা বাস্তবায়নের সিংহভাগ দায়িত্ব এই অনুষদের।

ভিসি বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে এতদিনে যে অনিয়মের পাহাড় জমেছিল, তা সরানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দিতে চাই শিক্ষার্থীদের। তাদের দিকে লক্ষ্য রেখে আপনারা সেশনজট নিরসনে আন্তরিক হবেন। আমাকে যদি পরামর্শ দেবার থাকে, আমাকে জানাবেন। এক্ষেত্রে আমার দুয়ার সর্বক্ষণ খোলা থাকবে।

ড. আসকারী বলেন, আমি আপনাদেরকে নিশ্চিত করতে চাই, কোন শিক্ষককে ভিসির সামনে ফাইল নিয়ে বসে থাকতে হবে না, অফিসে তো নয়ই। তিনি বলেন, গত একাডেমিক কমিটির সভায় আমরা পরীক্ষাসমূহ ১টা থেকে ৫টা পর্যন্ত নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থে আপনারা এটা বিবেচনা করবেন।এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন প্রয়োজনীয় পরিবহন সুবিধা দেবে।

তিনি আরও বলেন, এই অনুষদের শিক্ষকদের মধ্যে আমি ইস্পাতকঠিন ঐক্য দেখতে চাই। ক্ষুদ্র, ব্যক্তিগত ও দলীয় স্বার্থের উর্দ্ধে উঠে আপনারা আপনাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করুন। মতভেদ কোন অনুষদেই আমি দেখতে চাইনা।

ভিসি হিসেবে আমার এই যাত্রা তখনই সফল হবে যখন বিজ্ঞান অনুষদ আমাকে সহযোগিতা করবে। প্রত্যেকে নিজের নিজের জায়গা থেকে প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে আমাকে অকৃপণভাবে সহায়তা করবেন যাতে এই বিশ্ববিদ্যালয়কে নবজন্ম দিতে পারি। ভবিষ্যতে পর্যায়ক্রমে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সেমিনার-কনফারেন্সের আয়োজনের ঘোষণা দেন ভিসি।

মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য প্রদান করেন, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি আ.ও.ম. আছাদুজ্জামান, ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি মুহা: শরিফুল ইসলাম, অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো: শামসুল আলম, প্রক্টর প্রফেসর ড. মো: মাহবুুবর রহমান, ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ড. মহা: আনোয়ারুল হক, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান,

ইলেকট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি ড. মো: মনজারুল আলম, ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. তানজীমা পারভীন, বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ড. মোহাম্মদ মিন্নাতুল করিম, ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মো: রেজাউল করিম, গণিত বিভাগের সভাপতি মো: নূরুল ইসলাম,

পরিসংখ্যান বিভাগের সভাপতি আলতাফ হোসেন, প্রফেসর ড. মমতাজুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মো: নজিবুল হক, প্রফেসর ড. এম. মনিরুজ্জামান, প্রফেসর ড. মো: আতিকুর রহমান, প্রফেসর ড. আহসান-উল-আম্বিয়া, প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মন, প্রফেসর ড. আব্দুস সামাদ, প্রফেসর ড. দীপক কুমার পাল প্রমুখ।

বক্তাগণ একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে অন্তরায়সমূহ তুলে ধরেন। ভিসি অত্যন্ত মনোযোগ সহকারে তাঁদের বক্তব্য শোনেন এবং অন্তরায়সমূহ দূর করতে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণের আশ্বাস দেন। ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ড. শেখ মোহাম্মদ আব্দুর রউফ মতবিনিময় সভাটি পরিচালনা করেন।

ঢাকা, ২০ অক্টোবর, (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// আইএইচ