[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



শুধু পুঁথিগত পাঠ পরিপূর্ণ মানবসম্পদে রুপান্তর করে না: ইবি ভিসি


প্রকাশিত: October 27, 2016 , 6:03 pm | বিভাগ: আপডেট,খুলনার ক্যাম্পাস,পাবলিক ইউনিভার্সিটি


IU1

ইবি লাইভ: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী বলেছেন শুধু পুঁথিগত পাঠ এবং একটি বা কয়েকটি সার্টিফিকেট একজন শিক্ষার্থীকে পরিপূর্ণ মানবসম্পদে রুপান্তর করে না; পুঁথিগত পাঠ একটি গুণ; একটি ধাপ মাত্র; পুরিপূর্ণ গ্রহনযোগ্য সম্পদ হতে আরো কয়েকটি ধাপ অতিক্রম করতে হবে শিক্ষার্থীকে।

তিনি বলেন সব থেকে জরুরী হলো নিজের ভেতরে যে আত্ম-সক্ষমতা রয়েছে সেটার উপর পরিপূর্ণ দখল অর্জন। ভিসি বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আল-ফিকহ বিভাগ ও সেলফ এ্যাসেসমেন্ট কমিটির যৌথ আয়োজনের অনুষ্ঠানে ও্যর্য়কশপ অন এয়্যারনেন্স বিল্ডিং ফর সেলফ এসেসমেন্ট বিষয়ক এক ও্যর্য়কশপে প্রধান অতিথি ও রির্সোস পারসন হিসেবে বক্তৃতা করেন। আল-ফিকহ বিভাগ ও সেলফ এসেসমেনট কমিটি ও্যর্য়কশপটির আয়োজন করেন।

প্রফেসর আসকারী তার বক্তব্য বলেন এটি র্থাড মিলেনিয়ামের প্রথম দশক যেখানে উচ্চতর শিক্ষাকে ঢেলে সাজাবার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। গত শতকের সনাতনী প্রথা-সংস্কৃতি ভিত্তিক শিক্ষার ধারনা পাল্টে ফেলার উপর গুরত্বারোপ করা হচ্ছে এখন যেখানে শিক্ষার আর্ন্তজাতিক মানের উপর সর্বাধিক গুরুত্বারোপ দেয়া হচ্ছে। যেখানে প্রধান্য পাচ্ছে শিক্ষা-শিক্ষণ-গবেষণা ও এসবের সর্বাধিকরণ।

ভিসি বলেন বর্তমান শিক্ষা প্রক্রিয়ায় প্রাথমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত যে ধাপগুলো সেখানে নানামুখী চর্চার প্রচলন রয়েছে। এখানে উচ্চ শিক্ষা ধাপে ভর্তি হবার পর বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই শিক্ষার্থীদের নানা অপূর্ণতা প্রত্যক্ষ করতে হয়। এটি হবার কারন হলো তাদের পেছনের শিক্ষার নানা দুর্বলতা।

যার কারনে একটি উচ্চ শিক্ষার সার্টিফিকেট তার হাতে থাকলেও সে কাঙ্খিত ফল লাভে ব্যর্থ হচ্ছে তাই টিকে থাকতে হলে এখনই শিক্ষার ধরনে ব্যাপক সংস্কার সাধন ঘটাতে হবে। তিনি বলেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ে হেকেপ বা আইকিউএসি’র মতো প্রকল্প এ ব্যাপারে অবশ্যম্ভাবী সহায়তা দিতে যাচ্ছে।

এই দুটি প্রকল্প প্রক্রিয়ায় শিক্ষক, সর্ম্পকযুক্ত কর্মী (নন-টিচিং স্টাফ), শিক্ষার্থী ও তাদের কর্মক্ষেত্রের সর্ম্পকযুক্ত কর্মী সবাইকে একটি রি-ইউনিয়নের মাধ্যমে এক জায়গায় এনে দিয়েছে। যেটা একটি ভাল কার্যক্ষম গোষ্ঠি তৈরি করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আল-ফিকহ বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. এ কে এম নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেস অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা, আইন ও শরীয়াহ অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. নূরুন নাহার।

এছাড়া ও্যর্য়কশপ অন এয়্যারনেন্স বিল্ডিং ফর সেলফ এসেসমেন্ট অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইকিউএসি’র পরিচালক প্রফেসর ড. কে এম আব্দুস ছোবহান, আল-ফিকহ বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. আবুবকর জাকারিয়া মজুমদার, ড. হামিদা খাতুন, মোহাম্মদ আনোয়ারুল ওহাব, মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, আলতাফ হোসেন ও আমজাদ হোসেন সহ বিভাগের এ্যলামনাই ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। ওয়ার্কশপটি পরিচালনা করেন আল-ফিকহ বিভাগের শিক্ষক ড. মুহাম্মাদ নাজিমুদ্দিন।

ঢাকা, ২৭ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// আইএইচ