[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



ঢাবিতে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে তোলপাড়: ৪ জনের বিজ্ঞপ্তি ৯ জন নিয়োগ!


প্রকাশিত: November 2, 2016 , 5:51 am | বিভাগ: আপডেট,ক্যাম্পাস,ঢাকার ক্যাম্পাস,পাবলিক ইউনিভার্সিটি


DU-live

ঢাবি লাইভ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে তুমুল ঝড় উঠেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এ ধরনের নজির নেই বলেও অনেক শিক্ষক দাবী করেছেন। হৈচৈ পড়ে গেছে সবখানে। এ নিয়োগ নিয়ে খোদ নীল দলের শিক্ষকরাও প্রশ্ন তুলেছেন। বলেছেন, বিজ্ঞপ্তিতে চারজন শিক্ষক নিয়োগের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু সিন্ডিকেটে সুপারিশ করা হয়েছে ৯ জনকে। এটা কতদুর যুক্ত সঙ্গত এটা এখন দেখার বিষয়।

তাদের মধ্যে আবার তিনজনকে শর্ত শিথিল করে স্নাতকোত্তর ছাড়াই নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া বিভাগ থেকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়ার নিয়ম থাকলেও বিষয়টি জানেন না খোদ বিভাগীয় চেয়ারম্যান। এ ধরনের কাজকে অন্যায় বলে অভিমত দিয়েছেন কেউ কেউ।

এমন চিত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটে ৯ জনকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হয়। যদিও সিন্ডিকেটের অনেক সদস্য এভাবে নিয়োগের বিরোধী ছিলেন। শর্ত শিথিল করে নিয়োগ দেয়ার ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত শিক্ষার্থীদের খাটো করা হয়েছে বলেও মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বলেছেন, এটা নজির হয়ে থাকবে। তবে অনিয়ম বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোভিসি (শিক্ষা) ও বিশ্ববিদ্যালয় নিয়োগ কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. নাসরীন আহমাদ ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, বিভাগের চাহিদা অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়ে থাকে। এর বেশি কিছু বলতে চাই না। কারণ আমরা যা করছি শিক্ষার্থীদের স্বার্থেই করছি। যদিও অনেকে এই নিয়োগকে দলীয় বলে আখ্যায়িত করেছেন।

সিন্ডিকেট সূত্রে জানা গেছে, কয়েক মাস আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগে ছুটিজনিত শূন্য পদে বিপরীতে ৪টি অস্থায়ী লেকচারার পদে আবেদন আহ্বান করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত শর্তানুযায়ী, লেকচারার পদে আবেদনকারীকে অবশ্যই ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তি, ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল অথবা কেমিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করতে হবে।

তাছাড়া উভয়টিতে প্রথম শ্রেণি অথবা জিপিএ/সিজিপিএ স্কেল ৪ এর মধ্যে ৩ দশমিক ৫০ অথবা কোনো বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমমানের ডিগ্রিপ্রাপ্ত হতে হবে। অথচ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ছুটিজনিত শূন্যপদে চারজনকে নিয়োগ দেয়ার কথা থাকলেও গত সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় ৯ জন শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। এর পর থেকেই সমালোচনায় পড়েছেন খোদ ভিসি।

নিয়োগের জন্য সুপারিশকৃতরা হলেন- ড. মো. শাহরুজ্জামান, মো. সিরাজুর রহমান, শান্তা বিশ্বাস, মো. মিনহাজুল ইসলাম, মো. সাজেদুল ইসলাম, সৈকত চন্দ্র দে, তানভীর আহমেদ, মো. নূরুস সাকিব ও সজীব বড়ুয়া। এদের মধ্যে মাস্টার্স ডিগ্রি না থাকা সত্ত্বেও নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্তরা হলেন, তানভীর আহমেদ, মো. নূরুস সাকিব ও সজীব বড়ুয়া। এরা সকলেই মেধাবী বলে জানানো হয়েছে।
নিয়োগের ব্যাপারে জানতে চাইলে ভিসি প্রফেসর ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের কল্যাণকে প্রাধান্য দেই। তাদের কথা মাথায় রেখে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকি। অনেক সময় কিছু বিভাগ মেধাবী শিক্ষার্থীকে নিয়োগ না দেয়ার জন্য পরিকল্পিতভাবে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ রাখে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে থাকে। এখানে তাই হয়েছে।

ভিসি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সবসময়ই মেধার ভিত্তিতেই শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়ে থাকে। প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে তিনজনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে তারা সবাই স্নাতক। মাস্টার্স করছে। মাস্টার্স করার পর তাদের চাকরি স্থায়ী করা হবে। নিয়োগ কমিটির সুপারিশের পর বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট অনুমোদন করলে শূন্য পদের বিপরীতে নিয়োগ দেয়া যায়। এটা আগেও হয়েছে।
বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এম নুরুল আমিন এর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, বিভাগের পক্ষ থেকে শিক্ষক নিয়োগের কোনো বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়নি। আমরা পত্রিকা দেখে বিজ্ঞপ্তির বিষয়টি জানতে পেরেছি। এর আগে এ বিষয়ে কোনো তথ্য জানতাম না। এখন জানলাম। দেখি প্রশাসন কি করে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিজ্ঞান অনুষদের এক শিক্ষক বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষক হতে হলে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করতে হচ্ছে। আর বাইরের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক করা ছাত্রকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এতে করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছেলেদের সঙ্গে একটি বৈষম্য করা হয়েছে। এ ব্যাপারে শিক্ষার্থীরাও নানান মন্তব্য করেছেন। বলেছেন, এখানে সবই সম্ভব।

 

ঢাকা, ১ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এএসটি