[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



ভিসির বাংলো ছেড়ে গ্রীণ হাউজে থাকেন পাবিপ্রবির ভিসি


প্রকাশিত: November 2, 2016 , 9:39 pm | বিভাগ: আপডেট,পাবলিক ইউনিভার্সিটি,রাজশাহীর ক্যাম্পাস


pastu-live

পাবিপ্রবি লাইভ : এক কোটি একাশি লক্ষ টাকা ব্যয় করে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নব নির্মিত ভিসির বিশাল বাঙলো দীর্ঘদিন ধরে তালাবদ্ধ থাকায় তা এখন পক্ষীকূলের অভয়ারণ্যে পরিনত হয়েছে। বর্তমান ভিসি প্রফেসর ড. আল-নকিব চৌধুরী এই বাঙলোতে না থেকে পাবনা শহরের সন্নিকটে দক্ষিণ রাঘবপুরের গ্রীণ হাউজ নামের ভাড়াকৃত বাসায় অবস্থান করায় জনশূন্য হয়ে পড়ে আছে প্রায় এক একর জমির উপর নির্মিত কারুকার্যপূর্ণ বাঙলোটি।

রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের সংস্থাপন অফিস, কাউন্সিল অফিস, ভিসির অফিস বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ধারিত ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক ভবনের কক্ষগুলো ফাঁকা রেখে ভিসির সুবিধার্থে সেই ভাড়াকৃত বাসায় পরিচালনা হচ্ছে সমস্ত অফিসিয়াল কার্যক্রম। অফিসিয়াল ফাইল সমূহ ক্যাম্পাস থেকে দক্ষিণ রাঘবপুরের গ্রীন হাউজে আনা-নেওয়ার ক্ষেত্রে একদিকে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে অফিসিয়াল কার্যক্রমের গতিশীলতা,

অন্যদিকে প্রতিনিয়ত অপব্যয় হচ্ছে যানবাহনের জ্বালানী সহ যাতায়াত খরচ। বাড়ী ভাড়া, যানবাহন খরচ, সিকিউরিটি বিল সহ অন্যান্য খরচ মিলে প্রতি বছর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা অযৌক্তিক অপচয় হচ্ছে।

pabna-380x253পাবিপ্রবির অর্থ ও হিসাব দপ্তর সুত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপন প্রকল্পানুযায়ী প্রথম প্রজেক্টের কার্যক্রম গত বছরে শেষ হওয়ার পরও ক্যাম্পাসের বাইরে বাসা ভাড়ার মাধ্যমে অর্থ অপচয়ের ব্যাপারে ইতো মধ্যে অডিট আপত্তি দাখিল করেছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন, ঢাকা কর্তৃক নির্ধারিত অডিট টিম।

এসব বিষয়ে পাবিপ্রবির অফিসার্স এসোসিয়েশনের নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক সোহাগ হোসেন বলেন, ভাড়াকৃত বাসা গ্রীণ হাউজ ত্যাগ করে ক্যাম্পাসের নির্ধারিত ভবনে আসার ব্যাপারে বহুদিন ধরে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে তাগিদ দিয়ে আসছি। এ ব্যাপারে ভিসি প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরীর কাছে কর্মকর্তাদের স্বাক্ষরিত লিখিত স্বারকলিপিও পেশ করা হয়েছে।

তারপরও কোন অগ্রগতিই হয়নি। ভিসি নিরাপত্তা সমস্যার অজুহাতে বারবার পাশ কাটিয়ে গেছেন। ক্যাম্পাসের ছাত্রী হলে ২৩৭ জন ছাত্রী বসবাস করছে। তারা যদি নিরাপদ ভাবে থাকতে পারে, তাহলে নিরাপত্তার দুশ্চিন্তা কিভাবে আসে, আমার জানা নেই।

তিনি আরও জানান, নব যোগদানকৃত প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম সম্প্রতি বলেছেন, ক্যাম্পাসে ব্যাংকিং কার্যক্রমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীবৃন্দের ভোগান্তির অবসানের জন্য দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। ফলে, আমরা আশা করছি অতি শীঘ্রই বিশ্ববিদ্যালয়েরর এসব সমস্যা গুলোর সমাধান ঘটবে।

 

[কার্টেসি : এনটিভি]

ঢাকা, ২ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// আইএইচ