[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসছে শিরোনামহীন


প্রকাশিত: November 4, 2016 , 4:48 pm | বিভাগ: আপডেট,পাবলিক ইউনিভার্সিটি,সিলেটের ক্যাম্পাস


Sikribi

সিকৃবি লাইভ: তুমি চেয়ে আছো তাই, আমি পথে হেঁটে যাই-সারা বাংলাদেশের তরুণ তরুণীদের মুখে মুখে চলে শিরোনামহীনের গান। লাল-নীল গল্প, হাসি মুখ বা আবার হাসি মুখ, একা পাখি, ক্যাফেটেরিয়া, বন্ধ জানালা, বুলেট কিংবা কবিতা, বাংলাদেশ, সুপ্রভাত, বাস স্টপেজ অথবা রবীন্দ্রনাথের গানসহ হরেক সুরের গান আছে শিরোনামহীন ব্যান্ডের।

সেই জাদুকরী সুরের গানের দল শিরোনামহীন আসছে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে। গত বুধবার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কৃষি শিক্ষার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ১০ বছর পূর্ণ করেছে। একদশক পূর্তিতে সিকৃবি প্রশাসন আনন্দ উৎসবের আয়োজন করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ৫ নভেম্বর শনিবার সকাল নয় টায় একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভা যাত্রা বের হবে, বেলা ১২টায় জন্মদিনের একটি বড় কেক কাটা হবে।

এ দিকে দশক পূর্তিতে বিভিন্ন অনুষদ থেকে দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ হচ্ছে, শনিবার বেলা সারে বারটায় পত্রিকা গুলো উন্মোচিত হবে। এর পর পরই সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ফটো গ্রাফিক সোসাইটি থেকে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর ব্যবস্থা রয়েছে। সংগঠনটির উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে একটি ভিডিও ডকুমেন্টরি নির্মানের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। একইদিন সন্ধ্যা ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পীদের পরিবেশনায় থাকছে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এর আগে বিকাল চারটায় অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা সভা। উক্ত অনুষ্ঠান গুলোতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ গোলাম শাহি আলম উপস্থিত থাকবেন। পর দিন রবিবার দুপুর তিনটায় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে। তবে সব কিছু ছাপিয়ে পুরো ক্যাম্পাস শিরোনামহীনকে নিয়ে উৎসবমুখর হয়ে উঠেছে।

প্রশাসন ভবনের সামনে নির্মিত মঞ্চটি যেন শুধু কাঠ ও বাঁশের মঞ্চ নয়, দশ বছরের সুখ-দু:খ আর স্মৃতি আনন্দের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছে এই মঞ্চ। ক্যাম্পাসের এই আনন্দ উৎসবে যোগ দিতে ইতোমধ্যে সাবেক সিকৃবিয়ানরা বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সিলেটে ছুটে এসেছেন।

উল্লেখ্য শিরোনামহীন বাংলা গানের অন্যতম জনপ্রিয় একটি ব্যান্ড। ১৯৯৬ সালে এ ব্যান্ডটি প্রতিষ্ঠিত হয়। তাঁরা মূলত ক্লাসিকাল এবং ফোঁক ধাঁচের গান করে থাকেন। ১৯৯৬ সালে জিয়াউর রহমান জিয়া, জুয়েল এবং বুলবুল ব্যান্ডটি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১০ সালে তানজির তুহিন ভোকাল হিসেবে ব্যান্ডটিতে যোগ দেন। তাদের প্রথম অ্যালবাম জাহাজী রিলিজ পেয়েছিলো ২০০৪ সালে।

পশ্চিমা বাদ্যযন্ত্র যেমন ড্রাম, গিটার, বেজ গিটার, ইলেক্ট্রিক গিটার এবং দেশীয় বাদ্যযন্ত্র যেমন দোতরা, সরোদ, বাঁশির সংমিশ্রনে শিরোনামহীন বাংলা ব্যান্ড ইতিহাসে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। এদিকে সিকৃবির আনন্দ উৎসবে যোগ দিতে শিরোনামহীন নিজেরাই উচ্ছ্বসিত হয়ে আছে। ব্যান্ডটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান তার অফিশিয়াল ফেসবুক পাতা থেকে একটু আগে সিকৃবির আনন্দ আয়োজন নিয়ে পোস্ট দিয়েছেন।
ঢাকা, ৪, নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// আইএইচ