[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



হ্যালো কৃষক বন্ধুরা…


প্রকাশিত: April 19, 2014 , 12:03 pm | বিভাগ: ফিচার


খলিলুর রহমান ফয়সাল: প্রতিমাসের শেষ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা পাঁচ মিনিটে বাংলাদেশ বেতারের সিলেট উপকেন্দ্র থেকে কৃষকদের সাথে কথা বলে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিকৃবি) তরুন কিছু শিক্ষার্থী। শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত কৃষি বিষয়ক এ বেতার অনুষ্ঠানটির নাম “মৃত্তিকা”। এ অনুষ্ঠানে থাকে কৃষকদের সমস্যা ও সমাধান, বর্তমান কৃষি প্রযুক্তিসহ তরুন কৃষি উদ্যোগতাদের উদ্বোদ্ধ করতে নানাবিধ আয়োজন।

দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খাত কৃষি হলেও কৃষকরা সবসময়ই নানা সমস্যায় ও বিড়ম্বনায় জড়িয়ে থাকেন। তবে এবার কৃষকদের চিরাচরিত সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এসেছে সিকৃবির তরুণদের সমন্বয়ে গঠিত সংগঠন ‘মৃত্তিকা’। কৃষিসেবা ও তথ্য পেতে কৃষকদের কাছে আশার আলো হয়ে দেখা দিয়েছে সংগঠনটি।

কৃষি ও কৃষি বিষয়ক নানা তথ্য নিয়ে এখন কৃষকের কাছে যাচ্ছে ‘মৃত্তিকা’। সবুজ মাঠের কারিগর কৃষকরা তাদের নানা সমস্যার কথা এসএমএস, ফোনকল কিংবা চিঠির মাধ্যমে জানাচ্ছে মৃত্তিকাকে। পরে মৃত্তিকা টিম সে সমস্যাগুলো বিশেষজ্ঞের মাধ্যমে সমাধান দিচ্ছে ৮৮.৮ এফএম বেতার তরঙ্গের মধ্য দিয়ে।

মর্ত্যের পৃথিবীতে, শেকড়ের সন্ধানে-এই মূলমন্ত্রকে সামনে রেখে ১৪১৮ বঙ্গাব্দের পহেলা বৈশাখ যাত্রা শুরু করে মৃত্তিকা। এই পহেলা বৈশাখে মৃত্তিকা পা রাখছে চতুর্থ বর্ষে। মূলত সিকৃবির কৃষি অনুষদের কয়েকজন তরুণ-তরুনী মিলে মৃত্তিকা শুরু করলেও আজ এ সংগঠনের জনপ্রিয়তা দেশব্যাপী। পহেলা বৈশাখে “গ্রীষ্ম সংখ্যা” দিয়ে তারা মৃত্তিকা নামেই একটি কৃষি ও সাহিত্য বিষয়ক লিটল ম্যাগাজিন বের করে। মাত্র কয়েক বছরেই মৃত্তিকার কলেবর অনেকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে।

কৃষিক্ষেত্রে কৃষকদের অর্জন, সমস্যা ও সমাধানসহ কৃষিপণ্য বাজারজাত করার খুঁটিনাটি দিকসহ আরো অনেক কিছু রয়েছে ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানে। কথার ফাঁকে ফাঁকে চলে লোকগান, বাংলা সিনেমার গান, অনুরোধের গান।

যার হাত ধরে মৃত্তিকা যাত্রা শুরু করেছে তিনি হলেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুন কৃষিবিদ ও বর্তমানে জনসংযোগ ও প্রকাশনা দফতরের কর্মকর্তা খলিলুর রহমান ফয়সাল। তিনি বলেন “ আমাদের অর্জিত জ্ঞান গ্রামের কৃষকসহ সকল সাধারণ মানুষের কাছে পৌছে দিতে চাই। কৃষিতথ্য সেবা দিতে মৃত্তিকা কাজ করছে। এ সহায়তা কার্যক্রম সারাদেশে ছড়িয়ে দেওয়া তাদের সংগঠনের অন্যতম লক্ষ্য।”

ফয়সালের পর মৃত্তিকার বর্তমান হাল ধরেছেন মৌসুম ধর। সংগঠনটির সভাপতি মৌসুম বেতারে মৃত্তিকা অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনাও করেন। সঞ্চালক হিসেবে আরো কাজ করেন আফরিন জাহান আদিবা, অভিজিত পাল ও সুনন্দা দত্ত।

মৃত্তিকায় প্রচারিত নাটিকা “থাকবো সুখে বারমাস” জালাল চরিত্রে অভিনেতা ও নাটকটির পরিচালক আরিফুর রহমান বলেন-“আমরা সমসাময়িক কৃষকের সমস্যার উপর বেশি জোর দিয়ে থাকি।” তার সাথে কথা যোগ করেন জালালের মা চরিত্রের সিলেটের মেয়ে উম্মে হানি শিউলি। শিউলি বলেন-নাটিকাতে আমরা সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় কন্ঠ দিই, যাতে কৃষক পরিবার খুব সহজেই কৃষি তথ্যগুলো পায়। এ মাসের কৃষি’ বিভাগের নিয়মিত তথ্য সরবরাহকারী নোটন চৌধুরী বলেন-নির্দিষ্ট ফসলের জন্য সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করলে কৃষক বেশি লাভবান হয়। মৃত্তিকা অনুষ্ঠানে আমরা সে কাজটিই করে থাকি। কৃষকদের পাঠানো বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ফাতেমা তুজ জোহরা দিয়া। তিনি বলেন-কৃষকদের শেখানোর পাশাপাশি আমরা নিজেরাও অনেক কিছু শিখছি। মৃত্তিকার সবচে জনপ্রিয় অংশটি হলো মামা ভাগ্নে পর্ব। মামা-ভাগ্নে মজা করে রঙ্গে ঢঙ্গে কৃষি বিষয়ক তথ্য দিয়ে থাকে। মামা সাইফুল ইসলাম ও ভাগনে সাদমান সৌমিক মারুফ এ চরিত্রের জন্য দিন দিন সেলিব্রেটিদের খাতায় নাম লেখাচ্ছেন ।
 
জানা গেছে,  দেশের চারটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে প্রথম এ উদ্যোগ নিয়েছে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা। পযার্য়ক্রমে সারাদেশে এ উদ্যোগ ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে মৃত্তিকার। মৃত্তিকা বেতার অনুষ্ঠানের সমন¦য়কারী কৃষি তত্ত্ব ও হাওর বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস বলেন- বেতারের মাধ্যমে কৃষি বিষয়ক সঠিক তথ্যগুলো কৃষকের কাছে পৌছে দেয়ার কাজটি খুব সহজ। আমরা বিশেষজ্ঞদেও পরামর্শ নিয়ে তথ্যগুলো সরবরাহ করে থাকি। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন-শষ্য ও কৃষিজ উদ্ভিদের পাশাপাশি মৎস্য ও গবাদিপশু পালন বিষয়ক বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক ও সমসাময়িক তথ্য আমরা সিলেটসহ সারা বাংলাদেশের কৃষকদের কাছে পৌছে দেব।

সাহিত্য ও সংস্কৃতির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে অংশ নেয় মৃত্তিকা। দুস্থদের সহায়তা, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ইত্যাদি কাজে মৃত্তিকা সফলতার সাক্ষর রেখেছে। তাছাড়া সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট মৃত্তিকা (facebook.com/mrittika.sylau) থেকে প্রতিদিন দেশ-বিদেশের বিভিন্ন তথ্য সরবরাহ করা হয়।

লেখক: প্রশাসনিক কর্মকর্তা(সিকৃবি)

সিকৃবি, ১৯ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআর