[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের বড় উৎসব


প্রকাশিত: August 30, 2014 , 8:48 pm | বিভাগ: আইটি,এক্সক্লুসিভ,স্কুল


DSCF3790কংগ্রেস থেকে ফিরে সাইমুম সাদ: রাজধানীর আগারগাঁও বিজ্ঞান জাদুঘর।  চারদিকে সাজ সাজ রব। সকাল থেকেই চলছে উৎসবের আমেজ। ব্যানার, ফেস্টুন আর বেলুনে ছেয়ে গেছে জাদুঘরের মূল ফটক। ভেতরে সামিয়ানার টানিয়ে চলছে বৈঠকি আসর। আসরে আড্ডার মেজাজে ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের সাথে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও সাহিত্যিক মুহম্মদ জাফর ইকবালের যৌধ কংগ্রেস চলছে। ক্ষুদে বিজ্ঞানীরা জাফর ইকবালের সাথে সিলেবাসের নানা অসঙ্গতি নিয়ে আলোচনা করছেন। আলোচনারই এক ফাঁকে ‌হলিক্রস স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী আদিবা জেরিন মাইক্রোফোনটা ধরে বললেন, ‌‘স্যার আমি এবার পরীক্ষার আগেই সব প্রশ্নপত্র পেয়েছিলাম। শুধু অংকেরটা পাইনি বলে আমার গোল্ডেনটা মিস হয়েছে!’ হলজুড়ে হাসির রোল পড়ে গেল। জাফর ইকবালও রসিকতায় কম যান। মজা করে বললেন,  ঠিক আছে তোমরা যাতে আগামীবার থেকে সব প্রশ্নপ্রত্র পরীক্ষার আগেই পাও তার জন্য আমরা মানববন্ধন করবো!’ এমনি মজায় মজায় কেটে গেল জাতীয় শিশু কিশোর কংগ্রেসের শেষ দিন।
congresss.33jpg

এই উৎসবে সামিল হতে সারাদেশ থেকে প্রায় একহাজার ক্ষুদে বিজ্ঞানী হাজির হয়েছিল জাতীয় জাদুঘরে। নিজের উদ্ভাবনী শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বানানো নতুন নতুন প্রজেক্টগুলো উপস্থাপন করে দর্শকদের বিমুগ্ধ করে ছেড়েছে তারা। তাদের চিন্তা গুলোও বেশ অদ্ভুত! মতিঝিল মডেল হাইস্কুলের শিক্ষার্থী পারসা সাইয়ারা গত একবছর ধরে গবেষণা করছে, ‘ কোন সময় পড়লে পড়া বেশি মনে থা্কে? এর জন্য প্রায় প্রত্যেকদিনই তাকে জরিপ করতে হয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে সে জেনেছে সকালে পড়লে সেটা বেশি মনে থাকে বেশি। আর দুপুর ও রাতে পড়লে সেটা মনে থাকে কম। সে আরো জরিপ করেছে কোন টাইপের মানুষদের বেশি পড়া মনে থাকে? লম্বা না বেটে শিক্ষার্থীর?

congresss.jpg৭৭

ভাবছেন জরিপে ফলটা বোধহয় আপনার বিরুদ্ধে গেল! নাহ! পারসার জরিপ বলছে,  পড়া মনে থাকায় লম্বা বা বেটে কোন বিষয় না। সবার ক্ষেত্রেই তা সমান।  চট্টগ্রাম থেকে এসেছে ইরফা নাওয়ার। চিটাগাং গ্রামার স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী। পুঁচকে ইরফাই সবাইকে তাক লাগিয়ে বিজ্ঞান প্রজেক্টে প্রাইমারী বিভাগে প্রথম হয়েছে। পেয়েছে পাঁচ হাজার টাকার চেক। একটি ক্রেস্ট। এই টাকায় কি করবে? ঝটপট উত্তর, একটা গবেষণাগার দেব! ইরফার প্রজেক্টটার নাম, ‌‘জল আর তেলে বুঁদ বুঁদের খেলা’। এটা কাজ করে কিভাবে? ইরফা এরকটা কাঁচের জারে তেল আর জল ঢালতে ঢালতে হাত নেড়ে নেড়ে জানাল,  ‘এবার এখানে কিছু ফুড কালার দিতে হবে। এরপর থেকে কার্বন ডাইঅক্সাইড উৎপন্ন হবে। এবং বুঁদ বুঁদ তৈরী হবে। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো সেই তেল-জলে কিছু ডিটারজেন্ট দিলে তেল-জল মিশে যাবে।’ তেমনটি ঠিকঠাক করেও দেখালো।

congresss

কংগ্রেসের মূল পর্বে আসতে অনেকটা পরিশ্রম করতে হয়েছে ইরফাদের। পেরুতে হয়েছে নানা চড়াই-উতরাই। অনেক প্রতিযোগিকে পেছনে ফেলেই এই মঞ্চে আসতে হয়েছে। যেমনটি জানালেন  আয়োজকরা, চলতি বছরের মে থেকে জুলাই পর্যন্ত সারা দেশে অনুষ্ঠিত হয় বিভিন্ন কার্যক্রম। এবারের আয়োজনে সারা দেশে মোট ১ হাজার স্কুলে প্রচারণা চালানো হয়। পরে সেখান থেকে ১০৪টি স্কুলের প্রায় ১২ হাজার শিক্ষার্থীর এতে অংশ নেয়। সেখান থেকে বেছে বেছে সেরারাই এখানে ঠাঁই পেয়েছে।

congresss.jpg44

অনুষ্ঠানের দিন সকাল থেকেই  বিজ্ঞান কুইজ প্রতিযোগিতা, প্রকল্প ও পোস্টার প্রদর্শনী, নিবন্ধ উপস্থাপনের পাশাপাশি নেটওয়ার্কিং কার্যক্রম, যৌথ কংগ্রেস, রোবট ও ড্রোন প্রদর্শন, বিজ্ঞান বইয়ের মেলা চলে।
কংগ্রেসের মূল পৃষ্ঠপোষকতায় ছিল ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক। সহযোগী হিসেবে ছিল বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, রকমারি ডটকম, কিশোর আলো ও জিরো টু ইনফিনিটি।
congresss.jpg 22

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান। এছাড়াও অনুষ্ঠানে আরো ছিলেন বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সহ-সভাপতি মুনীর হাসান, বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সভাপতি ও সাহিত্যিক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইয়াসমিন হক, কিশোর আলোর সম্পাদক ও সাহিত্যিক আনিসুল হক প্রমুখ।

 

ঢাকা, ৩০ আগষ্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ