[english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ



বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে যৌন হয়রানি নিয়ে তোলপাড়


প্রকাশিত: November 15, 2014 , 9:03 am | বিভাগ: আপডেট,ঢাকার ক্যাম্পাস,মেডিকেল কলেজ


বিএসএমএমইউ লাইভ : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ)। এটি দেশের অন্যতম চিকিৎসা বিদ্যাপীঠ। এর সুনাম সারাদেশব্যাপী। তবে সেই সুনাম যেন দুর্নামে পরিণত হতে চলেছে। বিএসএমএমইউ এর একজন প্রফেসর, একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও একজন কর্মচারীর বিরুদ্ধে রোগীদের যৌন হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। আর এ নিয়ে বিএসএমএমইউতে চলছে তোলপাড়।

এই তিনজনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ উঠেছে। তবে অলিখিতভাবে আরো অনেকের বিরুদ্ধেই এ-জাতীয় অভিযোগ রয়েছে।

ঘটনার শিকার ব্যক্তি কিংবা তাঁদের পরিবারের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করা হয়েছে। উল্লেখিত তিনজনের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে। সেই অভিযোগগুলো তদন্তের জন্য কমিটি হয়েছে। ইতিমধ্যে একজন কর্মচারীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় ও হাসপাতালের সাধারণ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা চান এসবের ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

বিএসএমএমইউ এর একজন জ্যেষ্ঠ প্রফেসর বলেন, ‘একে তো চিকিৎসা পেশার মতো মহান একটি পেশায় আমরা নিয়োজিত আছি। আবার এটি দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসা শিক্ষাঙ্গন। এখানে যদি চিকিৎসার নামে নারীদের ওপর অনৈতিক আচরণের অভিযোগ ওঠে, তবে আমরা মানুষের কাছে মুখ দেখাই কী করে!’ তিনি বলেন, ‘আমরা দেখতে চাই, কর্তৃপক্ষ এসব ঘটনার বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেয়। যদি তারা ঘটনাগুলো নিয়ে দায়সারা কোনো ব্যবস্থা নেয়, তবে আমরা এখানকার সাধারণ শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সম্মিলিতভাবে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে বাধ্য হব।’

লিখিত অভিযোগের একটি ঘটনার তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) মহাসচিব ও ব্যাসিক সায়েন্সের ডিন প্রফেসর ডা. ইকবাল আর্সলানকে।

লিখিত অভিযোগের বিবরণ : গত ১৬ অক্টোবর দুপুরে মাকে সঙ্গে নিয়ে নারায়ণগঞ্জের ডেমরা থেকে চিকিৎসা নিতে এসেছিল কলেজছাত্রী সুমা (ছদ্মনাম)। কিন্তু হাসপাতালে চিকিৎসার বদলে যৌন নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে তাকে এবং অসুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরতে হয়েছে। এ অভিযোগ উঠেছে বিএসএমএমইউয়ের কসমেটিক সার্জারি ও লেজার ইউনিটের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. দীপক কুমার দাসের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর মেয়েটি লিখিতভাবে অভিযোগ জানায় হাসপাতালের পরিচালকের কাছে। ওই ঘটনায় উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে কর্তৃপক্ষ।

শুধু এই একটি অভিযোগ নয়, লিখিত ও অলিখিত এ ধরনের অনেক অভিযোগ রয়েছে বিএসএমএমইউ এর কর্তাবাবুদের বিরুদ্ধে। মেডিকেল কর্তৃপক্ষ এগুলো তদন্ত করে দেখা হবে বলে জানিয়েছে।

 

বিএসএমএমইউ, ১৫ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//আরএ